Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : শনিবার, ৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০৮
সার না পেয়ে শঙ্কায় ডিলার-কৃষক
গুদাম থেকে সার সরবরাহ বন্ধ
সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি
সার না পেয়ে শঙ্কায় ডিলার-কৃষক

বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন করপোরেশন (বিএডিসি) গুদাম থেকে তিন দিন ধরে সার সরবরাহ বন্ধ রয়েছে। বিএডিসির কর্মকর্তারা নিরাপত্তাহীনতার কারণ দেখিয়ে সরকারি অফিসটি বন্ধ করে দেন। অন্যদিকে অনুমোদিত ডিলাররা সার উত্তোলন করতে এসে ফিরে যাচ্ছেন। ডিলারদের কাছে সার না পেয়ে চলতি মৌসুমে বোরো আবাদ নিয়ে শঙ্কিত কৃষকরা। জানা যায়, বিএডিসি মনোনীত ছয়টি প্রতিষ্ঠানের সমন্বয়ে গঠিত সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট কোম্পানি সারা দেশে বিএডিসি সার গুদামে শ্রমিক হ্যান্ডেলিং করে লোড-আনলোড করে থাকে। জেলা শহরগুলোতে সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট কোম্পানি তাদের মনোনীত ঠিকাদার দিয়ে এ কাজ করায়। কিছুদিন ধরে সিরাজগঞ্জ শহরের মেসার্স এসএস ট্রেডার্স সিঅ্যান্ডএফ নিয়োগকৃত ঠিকাদার হিসেবে কাজ করছিল। প্রতিষ্ঠানটির গাফিলতির অভিযোগ এনে সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট মেসার্স এসএস ট্রেডার্সকে বাতিল করে শহরের আরেকটি প্রতিষ্ঠান আয়ান ট্রেডিংকে ঠিকাদার হিসেবে নিয়োগ এবং বিএডিসিকে সহযোগিতার জন্য পত্র দেওয়া হয়। কিন্তু বিএডিসি (সার) সিরাজগঞ্জের যুগ্ম পরিচালক ড. রফিকুল ইসলাম মেসার্স আয়ান ট্রেডিংয়ের নিয়োগপত্র গ্রহণ না করে সরকারি প্যাডে আয়ান ট্রেডিংকে লোড-আনলোড কাজ থেকে বিরত থাকার আদেশ দেন। আগের ঠিকাদার মেসার্স এসএস ট্রেডার্সকে কাজের অনুমতি না দিলে সিঅ্যান্ডএফ এজেন্টকে বিল দেওয়া হবে না বলেও জানান তিনি। তার এ সিন্ধান্তের কারণে আয়ান ট্রেডার্সের সঙ্গে বিএডিসির কর্মকর্তা রফিকুল ইসলামের দ্বন্দ্ব দেখা দেয়। এ অবস্থায় রফিকুল ইসলাম এসএস টেডার্সকে পুনঃনিয়োগ ও নিরাপত্তাহীনতার কারণ দেখিয়ে অফিস বন্ধ করে দেন। অফিস বন্ধ থাকার কারণে সার নিতে পারছেন না জেলার ডিলাররা।

বিএডিসি-সার সিরাজগঞ্জের যুগ্ম পরিচালক রফিকুল ইসলাম এ প্রতিবেদককে বলেন, ‘আপনি যা ইচ্ছে লিখেন। অফিস বন্ধ রাখি বা না রাখি সেটি আমার ইচ্ছা।’ এ বলেই ফোন কেটে দেন।

বিএডিসির মহাব্যবস্থাপক (সার) আশুতোষ লাহিড়ী জানান, চুক্তি মোতাবেক গুদামে লোড-আনলোড করে এজেন্ট সিঅ্যান্ডএফ। এখানে বিএডিসির তেমন সম্পৃক্ততা নেই। কাউকে সুপারিশ করার বিধান না থাকলেও যুগ্ম পরিচালক রফিকুল ইসলাম হয়তো মানবিক কারণে মেসার্স এসএস ট্রেডার্সকে সুপারিশ করেছেন। এ কারণে আয়ান ট্রেডার্সের লোকজন অফিসে ঢুকে নানা হুমকি-ধামকি ও কর্মকর্তাদের নাজেহাল করেছে। এ জন্য কর্মকর্তারা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। যে কারণে বিএডিসি গুদাম থেকে সার সরবরাহ বন্ধ রাখা হয়েছে। তবে বিকল্প হিসেবে উল্লাপাড়া থেকে ডিলারদের সার উত্তোলনের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সিঅ্যান্ডএফ কর্মকর্তা এখলাস রহমান জানান, প্রথমে আয়ান ট্রেডার্সকে দেওয়া হলেও পরবর্তীতে তা স্থগিত করে মেসার্স এসএস ট্রেডার্সকে কাজ দেওয়া হয়। তবে সার সরবরাহ বন্ধের বিষয়টি তার জানা নেই।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow