Bangladesh Pratidin

ঢাকা, সোমবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : ৬ জুন, ২০১৬ ১৯:২৯
সিরাজগঞ্জে স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর যাবজ্জীন
সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধিঃ
সিরাজগঞ্জে স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর যাবজ্জীন

সিরাজগঞ্জের বেলকুচিতে স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর যাবজ্জীন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সাথে ৫ হাজার টাকার জরিমানা ও অনাদায়ে আরো এক বছরের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।  

সোমবার বিকেল সোয়া ৪ টার দিকে আসামীর উপস্থিতিতে জেলা ও দায়রা জজ মোঃ জাফরোল হাছান এ দণ্ডাদেশ দেন। দণ্ডপ্রাপ্ত ওমর ফারুক (২৬) বেলকুচি উপজেলার ধুলদিয়ার গ্রামের মৃত মফিজ উদ্দিনের ছেলে। এ মামলার অপর ৩ আসামীর বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমানিত না হওয়ায় তাদের বেকুসুর খালাস দেয়া হয়।  

সিরাজগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পেশকার আব্দুর রশিদ জানান, ২০১৪ সালের ৮ আগষ্ট এনায়েতপুর থানার খুকনী ইউনিয়নের জটিবাড়ী গ্রামের ফজর আলীর মেয়ে মুক্তা খাতুন (১৮) সাথে ওমফর ফারুকের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে এক লাখ টাকা যৌতুকের দাবীতে স্ত্রী মুক্তাকে শারিরীক ও মানসিক নির্যাতন চালায় সে। এরই এক পর্যায়ে ৩১ অক্টোবর গভীর রাতে মুক্তা খাতুনকে শ্বাসরোধে হত্যা করার পর আত্মহত্যা বলে প্রচার করে। এ ঘটনায় ওই বছরের ৫ নভেম্বর নিহত মুক্তার মামা রাজু আহম্মেদ মোল্লা বাদী হয়ে ওমর ফারকসহ ১০ জনকে আসামী করে আদালতে মামলা দায়ের করেন। মামলার তদন্ত শেষে বেলকুচি থানা পুলিশ ৪ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশীট দেন।  

দীর্ঘ শুনানী শেষে সোমবার বিকেলে আদালত নিহতের স্বামী ওমর ফারুককে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড প্রদান করেন এবং বাকীদের বেকসুর খালাস প্রদান করা হয়। রাষ্ট্রপক্ষে পাবলিক প্রসিকিউটর এ্যাড. আব্দুর রহমান এবং আসামীপক্ষে এ্যাড. মোয়াজ্জেম হোসেন মামলাটি পরিচালনা করেন।  

 

বিডি প্রতিদিন/০৬ জুন ২০১৬/হিমেল-১৫

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow