Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৬

আপডেট : ১৪ জুন, ২০১৬ ২০:৫৯
সিরাজগঞ্জে চেয়ারম্যানের পা ভেঙে দিয়েছে যুবলীগ নেতা
সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি:
সিরাজগঞ্জে চেয়ারম্যানের পা ভেঙে দিয়েছে যুবলীগ নেতা

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে নরিণা ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে বিজয়ী হওয়ায় রড দিয়ে পিটিয়ে নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান ফজলুল হকের পা ভেঙে দিয়েছে সন্ত্রাসীরা। সোমবার রাত এগারোটার দিকে থানা থেকে বাড়ি ফেরার পথে উপজেলা সদরের কালবাড়ী মোড়ে প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ প্রার্থীর সমর্থক যুবলীগ নেতা আশিকুর রহমান দিনারের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী এ হামলা চালায়। গুরুত্বর অবস্থায় তাকে সিরাজগঞ্জ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ সময় তার ব্যবহৃত মোটরসাইকেলটিও ভাংচুর করা হয়।

ইউপি চেয়ারম্যান ফজলুল হক জানান, শাহজাদপুর থানায় একটি বৈঠক শেষে রাত পৌনে এগারোটার দিকে মোটরসাইকেলে বাড়ি ফেরার পথে কালিবাড়ি মোড়ে যুবলীগ নেতা ও স্থানীয় এমপির কথিত ভাতিজা দিনারের নেতৃত্বে যুবলীগ কর্মী রতন, নাহিদ ও মারুফসহ ৭/৮জন রামদা নিয়ে তার গতিরোধ করে। মোটরসাইকেল থামানোর পরই তাকে রামদা দিয়ে কোপ দেওয়ার চেষ্টা করে। কিন্তু মোটরসাইকেল ফেলে দৌঁড় দেওয়ায় কোপটি লাগেনি। পরে তারা রড দিয়ে তাকে বেধড়ক পেটায়। এক সময় সন্ত্রাসীদের মধ্যে একজন বলে, ও যেন আর জীবনে ফুটবল খেলতে না পারে সে জন্য একটা পা ভেঙে দে। এ কথা বলার পরই কয়েকজন রড দিয়ে পিটিয়ে তার ডান পা ভেঙে দেয়। তিনি বলেন, জীবন বাঁচানোর তাগিদে আহত অবস্থায় আমি দৌঁড়ে থানায় সামনে চলে আসি। পরে পুলিশ আমাকে উদ্ধার করেন।

প্রসঙ্গত, ইউপি চেয়ারম্যান ফজলুল হক সিরাজগঞ্জের কৃতী ফুটবল খেলোয়াড়।
 
ইউপি চেয়ারম্যান বলেন, আমি জীবনে কাউকে একটা চড়ও মারিনি। খেলাধুলা নিয়ে বেশি সময় ব্যয় করেছি। নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে জনগনের ভোটে জয়ী হয়েছি। আর এ কারণে আমাকে হত্যার জন্য হামলা চালানো হয়েছে।
 
শাহজাদপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মনিরুল ইসলাম জানান, এ ঘটনায় চেয়ারম্যান নিজেই বাদী হয়ে দিনার, রতন, মারুফ ও নাহিদের নাম উল্লেখ করে মামলা দায়ের করেছেন। আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

বিডি-প্রতিদিন / এস আহমেদ




আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow