Bangladesh Pratidin

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭

প্রকাশ : ১৫ জুন, ২০১৬ ১৭:০৫
আপডেট :
সাংবাদিক পরিচয়ে চাঁদাবাজি করতে গিয়ে......
নেত্রকোনা প্রতিনিধি
সাংবাদিক পরিচয়ে চাঁদাবাজি করতে গিয়ে......

নেত্রকোনার বারহাট্রা উপজেলায় সাংবাদিক পরিচয়ে চাঁদাবাজি করতে গিয়ে এক বিতর্কিত নারীসহ তিন প্রতারক এলাকাবাসীর হাতে ধরা পড়ে নাস্তানাবুদ, ক্যামেরা ভাংচুর ও ধাওয়া খেয়ে পালিয়ে প্রাণে রক্ষা পেয়েছে। গতকাল বিকেলে উপজেলার সাহতা কমিউনিটি ক্লিনিকে এই ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার বিকেল আনুমানিক ৩টার দিকে সাহতা কমিউনিটি ক্লিনিকে গিয়ে সাংবাদিক পরিচয়ে শান্তা ইসলাম, রাসেল ও ঝন্টু নামে তিন ব্যক্তি দুর্নীতি, অনিয়মের অজুহাতে সেখানে কর্তব্যরত জনৈক মহিলাকে শাসাতে থাকে। এক পর্যায়ে মোটা অঙ্কের চাঁদা দাবি করে। তা না হলে চ্যানেলে ফলাও করে দুর্নীতির সংবাদ প্রচার করা হবে বলে হুমকি প্রদান করে। এ সময় চিৎকার, চেঁচামেচি শুনে আশপাশের লোকজন জড়ো হয়ে তাদের পরিচয় জানতে চাইলে তারা নিজেদের চ্যানেল ২৬ টিভির সাংবাদিক টিম হিসেবে পরিচয় দেয়। এতে লোকজনের সন্দেহের সৃষ্টি হলে পুলিশে খবর দেয়া হয়। সমূহ বিপদ দেখে সাংবাদিক পরিচয় প্রদানকারীরা কেটে পড়তে চাইলে উত্তেজিত জনতা ধাওয়া করে তাদের উত্তম-মধ্যম দেয় এবং ক্যামেরা ভাংচুর করে। এক পর্যায়ে দৌড়ে পালিয়ে তারা প্রাণে রক্ষা পায়।

ওই তিনজন নেত্রকোনা শহরের সাতপাই রেলক্রসিং এলাকাসহ বিভিন্ন এলাকায় বসবাস করে বলে জানা যায়। ইতোপূর্বে জেলা শহরের এক পুলিশ কর্মকর্তার বাসায় চাঁদাবাজি করতে গিয়ে আটক হয়ে ওই প্রতারক চক্র জেল-হাজত ভোগ করে। এছাড়াও তারা পূর্বধলায় চাঁদাবাজি করতে গিয়ে জনতার হাতে আটক হয়ে থানায় সোপর্দ হয়।

ঘটনাস্থলে উপস্থিত আব্দুল মালেক, কিতাব আলী ও সুমন সাহা জানান, এলাকার দুই যুবক ওই ক্লিনিকে জুয়ার আসর বসাতে চাইলে বাধা দেয়ায় ওই তিন প্রতারকদের খবর দিয়ে আনার পর এই ঘটনা ঘটে। বারহাট্টা থানার ওসি ছালেমুজ্জামান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, তাদের বির’দ্ধে চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন মামলা রয়েছে।
 

 

বিডি-প্রতিদিন/১৫ জুন ২০১৬/শরীফ

 

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow