Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : ২৩ জুন, ২০১৬ ১৯:৪৫
লালমনিরহাটে তলিয়ে গেছে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ ২৫ হাজার ঘরবাড়ি
লালমনিরহাট প্রতিনিধি:
লালমনিরহাটে তলিয়ে গেছে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ ২৫ হাজার ঘরবাড়ি

বর্ষা আসার আগেই উজান থেকে ধেয়ে আসা পাহাড়ি ঢলে লালমনিরহাটের তিস্তা নদীতে আকস্মিক বন্যা দেখা দিয়েছে। এতে বিভিন্ন বাঁধ ভেঙে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ তিস্তার উপকুলীয় ১৫টি ইউনিয়নে ২৫ হাজার ঘরবাড়ি তলিয়ে গেছে।

বৃহস্পতিবার ভোরে হাতিবান্ধা উপজেলার সানিয়াযান ইউপির সানিয়াযান গ্রামে স্বেচ্ছাশ্রমে নির্মিত একহাজার মিটার দীর্ঘ বালির বাঁধের অন্তত একশ' মিটার পানির তোড়ে ধসে গেছে। বাঁধটি রক্ষার জন্য এলাকাবাসী বালুরবস্তা ফেলে বাঁধটি রক্ষার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। গরু,ছাগল, হাস-মুরগি নিয়ে তিস্তা পাড়ের মানুষ বিপাকে পড়েছেন।

তিস্তা নদীকবলিত বিভিন্ন এলাকা ঘুরে জানা গেছে, ভারি বর্ষণ ও উজানের ঢলে তিস্তার পানি বৃদ্ধি পায়। এরই এক পর্যায়ে ভারতের গজলডোবা ব্যারেজ এর সবকটি গেট খুলে দিয়ে পানি ছেড়ে দিলে তিস্তায় আকস্মিকভাবে ভয়াবহ বন্যা দেখা দেয়।

ফলে ভাটিতে পানির প্রবলতোড়ে লালমনিরহাটের তিস্তার উপকুলীয় ১৫টি ইউনিয়নের ৪৩টি গ্রাম প্লাবিত হয়ে পড়ে। এসব গ্রামের অন্তত লাখো মানুষের ঘরবাড়ি পানিতে তলিয়ে যায়। শুধু তাই নয় এসব ইউপির ১৮টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানও পানিতে তলিয়ে গেছে। তিস্তার প্রবল পানির তোড়ে ৩টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভাঙ্গন হুমকিতে পড়েছে। বিশেষ করে তিস্তা ও ধরলার ৬৩ চরের মানুষ পড়েছে চরম বেকায়দায়। এসব চরের বাসিন্দাদের বসতবাড়িতে পানি উঠেছে। চরে অধিকাংশ কাঁচা রাস্তা গুলো ভেঙ্গে গিয়ে যোগাযোগ ব্যবস্থা বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। দুর্ভোগের পড়েছে তিস্তা ও ধরলা পাড়ের হাজার হাজার মানুষ।

ডালিয়া পানি উন্নয়ন বোর্ডের নিবার্হী প্রকৌশলী মোস্তাফিজার রহমান জানান, দেশের অভ্যন্তরে ও উজানে ভারি বৃষ্টিপাত হওয়ায় তিস্তা ও ধরলায় বন্যা দেখা দিয়েছে। বৃহস্পতিবার পানি একটু কমলেও দেখা দিয়েছে ভাঙ্গন।

বিডি-প্রতিদিন/ ২৩ জুন ১৬/ সালাহ উদ্দীন

 

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow