Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বুধবার, ১৮ জানুয়ারি, ২০১৭

প্রকাশ : ১ জুলাই, ২০১৬ ০৮:১৭
আপডেট : ১ জুলাই, ২০১৬ ১৭:০৬
মন্দিরের সেবায়েতকে কুপিয়ে হত্যা
শেখ রুহুল আমিন, ঝিনাইদহ:
মন্দিরের সেবায়েতকে কুপিয়ে হত্যা

ঝিনাইদহ সদরের মধুপুর উত্তর কাস্ট সাগরা গ্রামের শ্রী শ্রী রাধামদন গোপাল মঠের সেবায়েত শ্যামা নন্দ দাস বাবাজিকে (৬৫) কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। আজ সকাল সাড়ে ৫ টার দিকে তিন মটরসাইকেল আরোহী মন্দিরের পাশে তাকে কুপিয়ে হত্যা করে। তার বাড়ি নড়াইল জেলার চাউলিয়া গ্রামে।

ঝিনাইদহ সদর থানার ওসি হাসান হাফিজুর রহমান জানান, আজ সকাল সাড়ে ৫ টার দিকে শ্যামা নন্দ দাস বাবাজি মঠ থেকে বের হয়ে পূজার জন্য ফুল তুলতে মঠের সামনের রাস্তার পাশে আসছিলেন। এ সময় ডিসকভারি ব্র্যান্ডের ১০০ সিসির একটি লাল রঙের মটরসাইকেলে তিন দুর্বৃত্ত মঠের গেটের পাশে যায়। পরে তারা শ্যামানন্দকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে পালিয়ে যায়।
খোঁজ পেয়ে স্থানীয় লোকজন গুরুতর অবস্থায় শ্যামানন্দকে উদ্ধার করে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ঝিনাইদহ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে। তবে কে বা কারা এ হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে তা তদন্ত শেষে জানা যাবে বলে ওসি জানান। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন ঝিনাইদহ জেলা প্রশাসক মাহবুব আলম তালুকদার ও জেলা পুলিশ সুপার আলতাফ হোসেন।

এলাকাবাসী জানান, শ্যামানন্দ দাস পরিবার ত্যাগ করে বৈষ্ণব ধর্মে দীক্ষা নিয়ে মন্দিরে মন্দিরে পূজা-অর্চনার কাজ করে বেড়াতেন। বছর চারেক আগে তিনি ঝিনাইদহে এসে সদর উপজেলার উত্তর কাস্ট সাগরা গ্রামের শ্রী শ্রী রাধামদন গোপাল মঠ মন্দিরের সেবায়েতের দায়িত্ব নেন। তাকে এলাকার মানুষ বাবাজি বলে ডাকতেন। তিনি খুব ভালো মানুষ ছিলেন।

বিডি-প্রতিদিন/এস আহমেদ

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow