Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৩ মার্চ, ২০১৭

প্রকাশ : ১৯ জুলাই, ২০১৬ ২০:৩৪
আপডেট :
মাথায় অস্ত্রোপচারের পর
লাইফ সাপোর্টে ইউপি চেয়ারম্যান তারাজুল
নিজস্ব প্রতিবেদক, বগুড়া
লাইফ সাপোর্টে ইউপি চেয়ারম্যান তারাজুল

মাথায় অস্ত্রোপচারের পর এখনো লাইফ সাপোর্টে রয়েছেন দুর্বৃত্তদের গুলিতে আহত বগুড়ার গাবতলী উপজেলার সোনারায় ইউপি চেয়ারম্যান তারাজুল ইসলাম। গত ১০ দিন আগে বগুড়ার একটি ক্লিনিকে তার অস্ত্রোপচার করে মাথা থেকে গুলি বের করেছেন চিকিৎসকরা। সেই থেকে এখন পর্যন্ত তিনি লাইফ সাপোর্টে রয়েছেন। তাকে আরও কিছুদিন নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখা হবে বলে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন।  

তারাজুল বগুড়া জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি। সদ্য সমাপ্ত ইউনিয়ন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়নে গাবতলী উপজেলার সোনারায় ইউনিয়ন থেকে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।  

জানা গেছে, গত ৮ জুলাই শুক্রবার গভীর রাতে গাবতলীর সোনারায় ইউনিয়নের আটবারিয়া গ্রামে দুর্বৃত্তদের গুলিতে তিনি আহত হন। গুরুতর আহত অবস্থায় প্রথমে তাকে বগুড়া শজিমেক থেকে সিরাজগঞ্জ খাজা ইউনুস আলী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এবং পরে ঢাকায় স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। স্কয়ার হসপিটালের ডাক্তার তাকে লাইফ সাপোর্টে রাখার পরামর্শ দিয়েছিলেন। ঐ দিনই তাকে ঢাকা থেকে লাইফ সাপোর্ট অবস্থায় বগুড়ায় নিয়ে আসা হয়। ৯ জুলাই রাতেই বগুড়া শহরের কানুছগাড়ী এলাকায় তেস্লা নিউরোসাইন্স হসপিটালে গুলিবিদ্ধ তারাজুলের অস্ত্রোপচার করা হয়।

বগুড়া শজিমেক এর সহকারী অধ্যাপক, ব্রেইন ও মেরুদন্ড সার্জন ডা. ফরিদুল ইসলাম চৌধুরীর নেতৃত্বে চিকিৎসকরা সফল অস্ত্রোপচার করে মাথা থেকে গুলি বের করেন। সেই দিন থেকে বর্তমানে তারাজুল ওই হাসপাতালে লাইফ সাপোর্টে রয়েছেন।  

ব্রেইন ও মেরুদণ্ড সার্জন ডা. ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী জানান, আহত তারাজুল নিবির পর্যবেক্ষনে রয়েছেন। তার পার্লস, ব্লাড পেসার ভালো আছে। তবে খাদ্য নালীতে সমস্যার কারণে খাবার দেয়া যাচ্ছে না। তার প্রতিদিন ৩২শ’ ক্যালোরি প্রয়োজন হলেও স্যালাইনের মাধ্যমে ৪শ থেকে ৫শ ক্যালোরি সরবরাহ করা সম্ভব হচ্ছে। খাদ্যনালীর সমস্যা সমাধান হলে তারাজুলের সুস্থতার ব্যাপারে আরো বেশি আশাবাদি হওয়া যেত। তবে অস্ত্রোপচারের পর ১০ দিন যাবত লাইফ সাপোর্টে রয়েছেন। তিনি আরও বলেন, এ ধরনের রোগীদের সুস্থতার জন্য সময় লাগে। এ কারণে আরও কিছুদিন তাকে পর্যবেক্ষণে রাখা হবে।

বগুড়ার গাবতলী থানার ওসি শাহিদ মাহমুদ খান জানান, তারাজুল গুলিবিদ্ধ হওয়ার ঘটনায় তার স্ত্রী আঞ্জুমান আক্তার শাপলা বাদী হয়ে মামলা করেছে। এঘটনায় জাহাঙ্গীর নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

 

বিডি-প্রতিদিন/ ১৯ জুলাই, ২০১৬/ আফরোজ

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow