Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৩০ মার্চ, ২০১৭

প্রকাশ : ১৯ জুলাই, ২০১৬ ২০:৪৩
আপডেট :
কাপ্তাই হ্রদের মৎস্য সংরক্ষণে হ্যাচারি নির্মাণ
ফাতেমা জান্নাত মুমু, রাঙামাটি
কাপ্তাই হ্রদের মৎস্য সংরক্ষণে হ্যাচারি নির্মাণ

বিলুপ্ত হয়ে গেছে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার সর্ববৃহৎ কৃত্রিম জলধারা ও বাংলাদেশের প্রধান মৎস্য উৎপাদন ক্ষেত্রে কাপ্তাই হ্রদের প্রায় ৭৬ প্রজাতির মাছ। কার্প মাছের তালিকাভুক্ত রুই, কাতলা, মৃগেল মাছের আহরণের পরিমাণও আশংকাজনক হারে কমে এসেছে। তাই রাঙামাটি কাপ্তাই হ্রদে মাছের সুষ্ঠু ও প্রাকৃতিক প্রজনন, বংশ বৃদ্ধি এবং উৎপাদন বাড়াতে মৎস্য সংরক্ষণ প্রকল্পের আওতায় একটি হ্যাচারি ও ২৫ একর নার্সারি নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হয়েছে। খুব শিগগিরই এসব নার্সারি ও হ্যাচারিতে মাছের পোনা উৎপাদন করা হবে বলে জানান জেলা মৎস্য কর্মকর্তারা ।

মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১২টায় জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষ্যে রাঙামাটি জেলা মৎস্য বিভাগ, বিএফডিসি ও জেলা মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউটের আয়োজিত যৌথ সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানানো হয়।  

এসময় সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দেন, পার্বত্য চট্টগ্রাম মৎস্য চাষ উন্নয়ন ও সম্প্রসারণ প্রকল্পের উপ-পরিচালক আব্দুর রহমান, বিএফডিসির কর্মকর্তা মো. মাসুদুল আলম , সদর উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মনিরুল ইসলাম ও জেলা মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউটের উধ্বতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা এম এ বাশার প্রমুখ।

বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউটের বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা এম এ বাশার জানান, বর্তমানে মাত্র ৩২ প্রজাতির মাছ হ্রদ থেকে বাণিজ্যেক হারে আহরণ হয়। হ্রদ এলাকায় অবাধে মা মাছ নিধনের কারণে ২০-২৫ বছর আগেই মাছের সুষ্ঠু প্রাকৃতিক প্রজনন ব্যাহত হয়ে পড়ে। হ্রদে মাছের উৎপাদন বাড়াতে বিকল্প ব্যবস্থা হিসেবে সাম্প্রতিক বছরগুলোতে প্রায় ২৫ হাজার শুধুমাত্র কার্প জাতীয় পোনা অবমুক্ত করা হয়েছে। বর্তমানে হ্রদে দেশীয় যেসব প্রজাতির মাছ রয়েছে সেগুলো সংরক্ষণ ও সম্প্রসারণের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। পাশাপাশি হ্রদে মাছের সুষ্ঠু ও প্রাকৃতিক প্রজনন, বংশ বৃদ্ধি এবং উৎপাদন বাড়াতে প্রতি বছর বর্ষা মৌসুমে অনির্দিষ্টকালের জন্য সবধরনের মাছ শিকারের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। একই সঙ্গে হ্রদে অবমুক্ত করা হয় কার্প ও সিলভার কার্প জাতীয় মাছের পোনা। এছাড়া মাছের উৎপাদন বাড়াতে বছরের সব ঋতু ও মৌসুমে ৯ ইঞ্চি সাইজের পর্যন্ত পোনামাছ শিকারের ওপর নিষেধাজ্ঞা বলবৎ থাকে।  


বিডি-প্রতিদিন/ ১৯ জুলাই, ২০১৬/ আফরোজ

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow