Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বুধবার, ৭ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : ৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৮:২৬
রাঙামাটিতে পার্বত্য ভূমি কমিশনের বৈঠক
পার্বত্যাঞ্চলের সকল ভূমি বিরোধ নিষ্পত্তি করবে কমিশন
ফাতেমা জান্নাত মুমু, রাঙামাটি:
পার্বত্যাঞ্চলের সকল ভূমি বিরোধ নিষ্পত্তি করবে কমিশন

পার্বত্যাঞ্চলের সকল সম্প্রদায়ের ভূমি বিরোধ নিষ্পত্তির লক্ষ্যে কাজ করবে পার্বত্য চট্টগ্রাম ভূমি কমিশন।   রবিবার বিকাল ৩টায় রাঙামাটি সার্কিট হাউসে পার্বত্য ভূমি কমিশনের (বিরোধ নিস্পত্তি কমিশন) প্রথম বৈঠক শেষে কমিশনের চেয়ারম্যান ও সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি মোহাম্মদ আনোয়ার উল হক এ কথা বলেন।

সাংবাদিকদের সামনে তিনি বলেন, পার্বত্য ভূমি কমিশন আইনের কারণে পার্বত্যাঞ্চলের বাঙালিদের উচ্ছেদ হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা অমূলক ধারণা। কারণ পার্বত্য চট্টগ্রামের দীর্ঘ দিনের ভূমি বিরোধ নিস্পত্তির জন্য এ কমিশন গঠন করা হয়েছে। এ কমিশন শুধুমাত্র  ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীদের জন্য নয়, সকল জাতিগোষ্ঠীর কথা চিন্তা করে কাজ করবে। ভূমি বিরোধ নিস্পত্তির মাধ্যমে পাহাড়ে শান্তি প্রতিষ্ঠা করা হবে।

এ সময় পার্বত্য ভূমি কমিশনের (বিরোধ নিস্পত্তি কমিশন) বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন, প্রধানমন্ত্রীর আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিষয়ক উপদেষ্টা ড. গওহর রিজভী, পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির সভাপতি ও আঞ্চলিক পরিষদের চেয়ারম্যান  জ্যোতিরিন্দ্র বোধিপ্রিয় লারমা (সন্তু লারমা), পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান নব বিকরম কিশোর ত্রিপুরা, রাঙামাটি সার্কেল চিপ চাকমা রাজা ব্যারিষ্টার দেবাশীষ রায়, রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষকেতু চাকমা, রাঙামাটি জেলা প্রশাসক মো. সামসুল আরেফিন, পুলিশ সুপার সাঈদ তারিকুল হাসান প্রমুখ।

পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির সভাপতি ও আঞ্চলিক পরিষদের চেয়ারম্যান  জ্যোতিরিন্দ্র বোধিপ্রিয় লারমা (সন্তু লারমা) বলেন,  আশা করি এ কমিশন পার্বত্য চট্টগ্রামের ভূমি বিরোধ নিস্পত্তির জন্য গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। কমিশনের কাজের মধ্যে দিয়ে আমাদের সন্তুষ্টি প্রকাশ পাবে।
 
রাঙামাটি সার্কেল চিপ চাকমা রাজা ব্যারিষ্টার দেবাশীষ রায় বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রাম ভূমি-বিরোধ নিষ্পত্তি কমিশন আইন, ২০০১ এর প্রেক্ষিতে এ কমিশন গঠন করা হয়েছে। এটা কমিশনের প্রথম বৈঠক। তাই এখনও পার্বত্য চট্টগ্রামের ভূমির বিষয়ে তেমন কোন সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হযনি। কমিশনের কাজের অগ্রগতি বাড়াতে প্রথমিক পরিকল্পনা করা হয়েছে। কমিশনের জনবল সঙ্কটও রয়েছে। তাছাড়া বৈঠকে পার্বত্য এলাকায় ভূমি বিরোধ বিষয়ে নতুন করে দরখাস্ত আহবানের বিষয়ে আলোচনা হয়েছে।

উল্লেখ্য, পার্বত্য চট্টগ্রামে বিরাজমান ভূমি সংক্রান্ত বিরোধ দ্রুত নিষ্পত্তিকল্পে গত ১ আগস্ট প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত নিয়মিত মন্ত্রিপরিষদ বৈঠকে পার্বত্য চট্টগ্রাম ভূমিবিরোধ নিষ্পত্তি কমিশন (সংশোধন) আইন-২০১৬ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন দেওয়া হয়। এরপর ৮ আগষ্ট রাষ্ট্রপতির সম্মতিক্রমে ৯ আগস্ট সংশোধিত আইনটির উপর অধ্যাদেশ (নং-০১, ২০১৬) জারি করে সরকার।


বিডি-প্রতিদিন/এস আহমেদ

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow