Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৩:৩৮
সুন্দরবনে মুক্তিপণের দাবিতে ১০ জেলেকে অপহরণ
বাগেরহাট ও শরণখোলা প্রতিনিধি:
সুন্দরবনে মুক্তিপণের দাবিতে ১০ জেলেকে অপহরণ

বাগেরহাটের পূর্ব সুন্দরবনের চান্দেশ্বর এলাকা থেকে মুক্তিপণের দাবিতে ২০টি মাছধরা নৌকাসহ ১০ জেলেকে অপহরণ করেছে বনদস্যু জাহাঙ্গীর বাহিনী। অপহৃত জেলেদের বাড়ি পিরোজপুর ও পাথরঘাটা এলাকায় বলে জানা গেছে।

 

জেলে-মহাজন সূত্র জানায়, মঙ্গলবার রাতে পূর্ব সুন্দরবনের শরণখোলা রেঞ্জের চান্দেশ্বর এলাকায় ইলিশ মাছ শিকার করছিল জেলেরা। এসময় সেখানকার জেলে বহরে হামলা চালায় সশস্ত্র বনদস্যু জাহাঙ্গীর বাহিনীর সদস্যরা। বনদস্যুরা জেলে বহরে হামলা চালিয়ে ইলিশ মাছ বোঝাই ২০টি মাছধরা নৌকা ও ১০ জেলেকে মুক্তিপণ আদায়ের জন্য অপহরণ করে নিয়ে যায়। যে সকল নৌকায় মাছ ছিল সেসব নৌকা থেকে কাউকে অপহরণ করা হয়নি। তবে যেসব নৌকায় মাছ ছিল না সেসব নৌকা থেকে একজন করে জেলেকে অপহরণ করা হয়েছে।  

বনদস্যু জাহাঙ্গীর বাহিনীর সদস্যরা অপহৃত জেলেদের কাছে মুক্তিপণ বাবদ জনপ্রতি ৫০ হাজার টাকা করে দাবি করেছে বলে জানিয়েছেন মহাজনরা। সম্প্রতিক সময়ে সুন্দরবনের বড় বড় কয়েকটি বনদস্যু বাহিনী আত্মসমর্পন করলেও কোনভাবেই কমছে বঙ্গোপসাগর উপকূল ও সুন্দরবনের দস্যুবৃত্তি। বড় বাহিনীগুলো আত্মসমর্পন করার পর থেকে সুন্দরবনে বেপরোয় হয়ে উঠেছে বনদস্যু সাগর ও জাহাঙ্গীর বাহিনীর সদস্যরা। এই দুই বনদস্যু বাহিনী প্রায় প্রতিদিনই কোন না কোন এলাকা হতে মুক্তিপণ আদায়ের জন্য জেলে অপহরণ ও লুটপাট চালিয়ে যাচ্ছে।  

সুন্দরবনের শরণখোলা রেঞ্জের সহকারী বন সংরক্ষক (এসিএফ) মোহাম্মদ হোসেন বলেন, অপহরণের বিষয়টি জেলে ও মহাজনদের পক্ষ থেকে কেউ অবহিত করেনি।  

 

বিডি-প্রতিদিন/ ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬/ আফরোজ

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow