Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৭:১৪
মেহেরপুরে জোড়া খুনের মামলায় শিক্ষক নেতা কারাগারে
মেহেরপুর প্রতিনিধি:
মেহেরপুরে জোড়া খুনের মামলায় শিক্ষক নেতা কারাগারে

মেহেরপুরে বিএনপি নেতা হামিদুর রহমান হেলাল ও তার মেয়ে সেতু হত্যা মামলার প্রধান আসামী মোস্তাফিজুর রহমান টিপু আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন চাইলে বিচারক তার জামিন না মঞ্জুর করে কারাগারে পাঠিয়েছে।

বুধবার দুপুরে মেহেরপুরের চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট মহিদুজ্জামান এ আদেশ দেন। কারাদণ্ডাদেশ মোস্তাফিজুর রহমান টিপু সদর উপজেলার যাদুখালী স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ হিসেবে কর্মরত রয়েছেন। এছাড়াও তিনি স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদ (স্বাশিপ) জেলা শাখার সভাপতি এবং বাংলাদেশ পল্লী উন্নয়ন বোর্ড (বিআরডিবি) মেহেরপুর জেলা শাখার চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।
মামলার এজাহারে জানা গেছে, ২০১৩ সালের ২১ মার্চ সন্ধ্যায় মুজিবনগর উপজেলা বিএনপির ১ নম্বর যুগ্ম সম্পাদক পল্লী চিকিৎসক হামিদুর রহমান হেলালকে রতনপুরের নিজ বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে একদল সন্ত্রাসী এলোপাতাড়ি কুপিয়ে হত্যা করে। এসময় তার কলেজ পড়ুয়া মেয়ে সেতু বাধা দিতে গিলেও সন্ত্রাসীরা তাকেও কুপিয়ে আহত করে। পরদিন সেতু চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়। এ ঘটনায় হামিদুর রহমানের স্ত্রী সন্ধ্যা রানী বাদি হয়ে মুজিবনগর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলায় তদন্তকারী কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব দেয়া হয় এস আই মুধুসুদন দত্তকে। পরে মামলাটি অপরাধ তদন্ত বিভাগ(সিআইডি) কে দায়িত্ব দেয়া হয়। সিআইডির এস আই আফাজ উদ্দিন মামলা তদন্ত সম্পন্ন করে মোস্তাফিজুর রহমান টিপুকে প্রধান আসামী করে চলতি বছরের ২৯ আগষ্ট আদালতে অভিযোগ পত্র দাখিল করেন।  
মামলায় রাষ্ট্রপক্ষে সিএসআই নজরুল ইসলাম এবং আসামী আবদুল্লাহ আল আমিন আইনজীবীর দায়িত্ব পালন করেন।

বিডি-প্রতিদিন/ ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬/ সালাহ উদ্দীন

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow