Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০৯:৫৯
কুষ্টিয়ায় আ'লীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষে নিহত ২
কুষ্টিয়া প্রতিনিধি:
কুষ্টিয়ায় আ'লীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষে নিহত ২
প্রতীকী ছবি

কুষ্টিয়া সদর উপজেলার ঝাউদিয়া ইউনিয়নের মাছপাড়া গ্রামে স্থানীয় আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষে ইমান আলী (৩৫) ও শাহাবুদ্দিন (৫৫) নামে দুইজনের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছে অন্তত ২০জন।

তাদের মধ্যে চারজনকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। বাকিদের বিভিন্ন হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। শনিবার সকালে এ ঘটনা ঘটে। পুরো এলাকায় থমথমে পরিবেশ বিরাজ করছে।

নিহত ইমান আলী মাছপাড়া গ্রামের মৃত কিতাব আলীর ছেলে ও শাহাবুদ্দিন বৈদ্যনাথপুর গ্রামের মৃত মকসেদ আলীর ছেলে। সংঘর্ষ চলাকালে বেশ কিছু বাড়িঘর ভাঙচুরের পাশাপাশি লুটপাট করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

স্থানীয় কয়েকজন বাসিন্দা, গোয়েন্দা সংস্থা ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গত জুন মাসে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের পর থেকে সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও ঝাউদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কেরামত আলীর সমর্থকদের সঙ্গে একই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি বখতিয়ার হোসেনের সমর্থকদের বিরোধ চলে আসছে। এ নিয়ে ইউনিয়নের বেশ কয়েকটি গ্রামে কয়েক মাস ধরে মাঝেমধ্যেই দু'গ্রুপের লোকজনের মধ্যে সংঘর্ষ বাধতো। গত এক সপ্তাহে পৃথক তিনটি সংঘর্ষ হয়েছে।

শনিবার সকাল ৬টার দিকে কেরামত আলীর কাশিনাথপুর, বদ্যনাথপুর ও ঝাউদিয়া গ্রামের সমর্থকেরা জোটবদ্ধ হয়ে মাছপাড়া গ্রামে প্রবেশ করে। মাছপাড়া গ্রামে বখতিয়ার হোসেনের সমর্থকেরা বাধা দেয়। একপর্যায়ে উভয় পক্ষের লোকজন দেশীয় অস্ত্র নিযে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।
এতে ইমান আলী নামের এক ব্যক্তি ফলাবিদ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যায়। সকাল ৯টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শাহাবুদ্দিন নামের একজন মারা যান। ইমান আলী ও শাহাবুদ্দিন কেরামত আলীর সমর্থক বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছে কমপেক্ষ ২০জন। বাড়ি-ঘরে হামলার পাশাপাশি লুটপাট চালানো হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে এলাকায় অতিরিক্তি পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

ঝাউদিয়া পুলিশ ক্যাম্পের উপপরিদর্শক (এসআই) দিলীপ বিশ্বাস নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, সকালে দুই পক্ষের সংঘর্ষে ইমান আলী নামের একজন নিহত হয়েছে। লাশ ঘটনাস্থলে আছে। আহতদের হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আছে।


বিডি-প্রতিদিন/এস আহমেদ

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত
up-arrow