Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২০:৩৬
মুঠোফোন চুরির অভিযোগে দুই ছাত্রীকে ১০ ঘণ্টা আটকে নির্যাতন
আব্দুর রহমান টুলু, বগুড়া:
মুঠোফোন চুরির অভিযোগে দুই ছাত্রীকে ১০ ঘণ্টা আটকে নির্যাতন

বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলায় মুঠোফোন চুরির অভিযোগে দুই স্কুলছাত্রীকে নির্যাতন করা হয়েছে। এ বিষযে মেয়ের বাবা আবুল কালাম আজাদ বাদি হয়ে সোমবার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর ও শিবগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।
 
নির্যাতিত দুই স্কুলছাত্রী হলো- শিবগঞ্জ উপজেলার মোকামতলা উচ্চ  বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী ও মোকামতলা ইউনিয়নের গনেশপুর গ্রামের আবুল কালাম আজাদের মেয়ে কাবেরি ইয়াছমিন কনা (১৪) ও একই গ্রামের বুলু মিয়ার কন্যা মোছা. তাছলিমা খাতুন (১৫)।

অভিযোগে জানা গেছে, গত ২০ সেপ্টেম্বর গনেশপুর গ্রামের মোসলেম উদ্দিনের বাড়ি থেকে তার ছেলে খোরশেদ আলীর একটি মুঠোফোন চুরি হয়। এই মুঠোফোন হারানোর জের ধরে খোরশেদসহ ৪/৫ জন যুবক মিলে ওই দুই স্কুলছাত্রীকে কৌশলে তাদের বাড়িতে ডেকে এনে মোবাইল ফোন চুরির বিষয়টি জানায়। তারা মোবাইল ফোনটি নেওয়ার কথা অস্বীকার করলে তাদের আটক করে মারপিট করা হয়। এমনকি গলায় ওড়না জড়িয়ে ফাঁস দিয়ে শ্বাসরোধে হত্যার চেষ্টা চালায়। ওই দুই ছাত্রীকে তাদের বাড়িতে ১০ ঘন্টা আটক করে রাখা হয়। বিষয়টি পুলিশকে জানানো হলে রাত ১২টার দিকে মোকামতলা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ শামীম আকতার তাদের উদ্ধার করে শিবগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে দেন।

শামীম আকতার জানান, কণাকে অজ্ঞান অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। তার গলায় ফাঁস দেওয়ার দাগ রয়েছে।

শিবগঞ্জ থানার ওসি মোস্তাফিজুর রহমান অভিযোগের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, বিষয়টি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।       

বিডি-প্রতিদিন/এস আহমেদ

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow