Bangladesh Pratidin

ঢাকা, সোমবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২১:০৯
দুধের শিশু নিয়ে এক প্রতিবন্ধী মা জেলহাজতে
মাসুদ হাসান, শেরপুর প্রতিনিধি
দুধের শিশু নিয়ে এক প্রতিবন্ধী মা জেলহাজতে

চুরি ও মারামারির মামলায় ১০ দিন ধরে দেড় বছরের  দুধের শিশু নিয়ে এক প্রতিবন্ধী মা শেরপুর জেলখানায় হাজত   বাস করছে। তার নাম জেসমিন, বাড়ী জামালপুর জেলার বকশিগঞ্জ উপজেলার বগারচর ইউনিয়নের খাসির গ্রাম এলাকায় বলে জানা গেছে। স্বামীর নাম জনৈক জাহান আলী।

কাগজে তার বয়স ১৮ লিখলেও জেসমিন জানিয়েছে, তার বয়স ১৫ বছর। ভঙ্গ স্বাস্থ্যের প্রতিবন্ধী এই মা ঠিকমত কথা বলতে পারেনা। মুখ দিয়ে লালা ঝড়ে। খাওয়া দাওয়া, কাপড়-চোপড় ও শিশু বাচ্চাটিকে নিয়ে তার কোন অনুভূতি নেই। জন্ম থেকেই সে প্রতিবন্ধি ও বাম হাতে সমস্যা। বাচ্চটিকে মাঝে মধ্যেই সে  চিনতে পারেনা। জেলের মিনারা নামে আরেক কয়েদি বাচ্চার দেখা শুনা করছে। কিছুক্ষন আগের কথা সে মনে রাখতে পারে না। মাঝে মধ্যে সে বাড়ী যাওয়ার জন্য চিৎকার করে বলে জেলখানা সূত্র জানিয়েছে।

শেরপুর জেলখানার জেল সুপার মজিবুর রহমান জানিয়েছেন, 'জেলে আসার পর থেকেই অবস্থাদৃষ্টে মনে হচ্ছে সে মানুষিক ভারসাম্যহীন একজন প্রতিবন্ধী। কথা বার্তায় চাল চলনে সে স্বাভাবিক না। অন্যজন খাবার এনে দিলে খায় না হলে চুপ থাকে। তবে আকুতি করে সে কখন বাড়ী যাবে'।

গত ২২ সেপ্টেম্বর জেসমিনের দেড় বছরের দুধের বাচ্চা “জীবন” ঠান্ডাজনিত কারনে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে জেল খানা কর্তৃপক্ষের সহয়তায় শেরপুর সদর হাসপাতালে ২দিন চিকিৎসার পর এখন মোটামুটি ভাল আছে। জেসমিন বাচ্চাকে দুধ খাওয়াতে ভুলে যায়। কেউ দুধ খাওয়াতে সহয়তা করলে বাচ্চাটি দুধ খেতে পারে।

জেসমিনের সাথে থাকা মহিলা কারারক্ষি মোছাঃ সোহেলী জানিয়েছে, 'জেসমিনের আচরন অস্বাভাবিক। কারও সাথে কথা বলে না, বাচ্চাটির কথাও তারমনে থাকেনা। তবে সে জামালপুর জেলখানা হাজতি। জামালপুর জেলা খানায় মহিলাদের থাকার অনুপযুক্ত বলে ওখানকার কয়েদীদের শেরপুর জেলা খানায় রাখা হয় বলে জেল সুপার জানান।

বিডি-প্রতিদিন/২৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬/তাফসীর

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow