Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : ৩ অক্টোবর, ২০১৬ ১৫:৩৯
যশোরে 'জঙ্গি' তিন ভাই-বোনের আত্মসমর্পণ
চায়ের দোকান থেকে 'জঙ্গি' কার্যক্রমে তারা
নিজস্ব প্রতিবেদক, যশোর
চায়ের দোকান থেকে 'জঙ্গি' কার্যক্রমে তারা

গত ৬ সেপ্টেম্বর ১১ পলাতক জঙ্গির ছবিসহ একটি পোস্টার প্রকাশ করে যশোর পুলিশ। ওই ১১ জনের মধ্যে আপন চার ভাই-বোনসহ ৬ জনই একই পরিবারের সদস্য ছিলেন। এদের মধ্যে আজ সোমবার যশোর পুলিশের কাছে আত্মসমর্পণ করেছেন তিনজন।

তারা হলেন যশোর শহরের পুরাতন কসবা কদমতলা এলাকার আব্দুল আজিজের ছেলে তানজিব আহমেদ আশরাফুল, তার ভাই তানজির আহমেদ, বোন মাছুমা আক্তার। অন্য তিনজন হলেন তাদের বোন মাকসুদা খাতুন, মাকসুদার স্বামী শাকির আহম্মেদ ও আরেক বোন মাছুমার স্বামী নাজমুল হাসান।

তবে, আত্মসমর্পণ করা ওই তিনজন এর আগেও একবার পুলিশের হাতে আটক হয়েছিলেন। পরে জামিন নিয়ে বেরিয়ে পলাতক হয়ে যান।

আত্মসমর্পণ করার পর তানজিব আহমেদ সাংবাদিকদের বলেন, ৬/৭ মাস ধরে তিনি নিষিদ্ধঘোষিত জঙ্গি সংগঠন হিযবুত তাহরীরের সাথে প্রাথমিক সদস্য হিসেবে জড়িত ছিলেন। যশোর শহরের ধর্মতলা এলাকার একটি চায়ের দোকানে তিনি প্রায়ই চা খেতে যেতেন। তানজিব বলেন, ‘সেখানেই পরিচয় হয় সজল, পাশা, রায়হানসহ আরও কয়েকজনের সাথে। প্রথমে তারা ধর্মীয় ভালো ভালো কথা বলতো। সেগুলো আমারও ভালো লাগতো। এরপর তারা লিফলেট জাতীয় কিছু বই পড়ার জন্য আমাকে দেয়। এগুলো পড়ার পর আস্তে আস্তে সংগঠনটির সাথে জড়িয়ে পড়ি’।

তানজিব আরও বলেন, প্রথমদিকের আড্ডায় তারা ইসলাম ও নামাজের দাওয়াত দিতো। তখন তাকে সংগঠন সম্পর্কে কোন ধারণায় দেয়া হতো না। এরপর বইগুলো পড়ার পর তাকে হিজবুত তাহরীরের সদস্য হয়ে খেলাফত প্রতিষ্ঠার জন্য জিহাদি পথে এগিয়ে যাওয়ার আহ্বান জানায় তারা। তাকে প্রথমে সাবাব সদস্যপদ প্রদান করা হয়। পরে বিভিন্ন সময়ে ঢাকা থেকে মোসাব্বির, সাকিন ও সাকিব পদের লোকজন এসে তাদের ক্লাস নিতো।
 
তানজিব বলেন, আত্মসমর্পণ করা তারা তিন ভাই-বোন এর আগেও একবার পুলিশের হাতে আটক হয়েছিলেন। পরে জামিনে মুক্তি পান তারা। এরপর দেশে বেশকিছু জঙ্গি হামলার ঘটনা ঘটার পর তারা ভুল বুঝতে পারেন। জঙ্গিদের নৃশংসতা তাদের বিবেককে নাড়া দেয়। পরে প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর আহ্বানে সাড়া দিয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসতে তারা আত্মসমর্পণ করার সিদ্ধান্ত নেন।

যশোরের পুলিশ সুপার আনিসুর রহমান জানিয়েছেন, যেহেতু স্বেচ্ছায় চরমপন্থী সংগঠন ত্যাগ করে তারা স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসতে চাইছে, তাই তাদেরকে সুযোগ দেওয়া হবে এবং বিষয়টি মানবিকভাবে দেখা হবে।
 
এর আগে, গত ১১ আগস্ট ও ২১ আগস্ট দুই দফায় হিজবুত তাহরীরের আরও চার সদস্য যশোর পুলিশের কাছে আত্মসমর্পণ করেছিলেন।

বিডি-প্রতিদিন/০৩ অক্টোবর, ২০১৬/মাহবুব

 

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow