Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : ৩ অক্টোবর, ২০১৬ ২২:২৫
শেরপুরে জেল সুপারসহ ১৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা
মাসুদ হাসান বাদল, শেরপুর:
শেরপুরে জেল সুপারসহ ১৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা

শেরপুর জেলা কারাগারের সামনে কারারক্ষীদের হাতে পরিবহন শ্রমিক নেতা আলমগীর হোসেন বিশুকে নির্যাতনের অভিযোগ এনে আদালতে  মামলা হয়েছে। ৩ অক্টোবর সোমবার বিকালে আহত শ্রমিক নেতা বিশুর স্ত্রী শান্তি বেগম বাদী হয়ে আদালতে মামলাটি দায়ের করেন। চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. সাইফুর রহমান মামলার প্রেক্ষিতে ভুক্তভোগীর ডাক্তারি সনদপত্র সংগ্রহ সাপেক্ষে তদন্তপূর্বক প্রতিবেদন দাখিলের জন্য শেরপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে নির্দেশ দিয়েছেন। মামলায় জেল সুপার মজিবুর রহমান ও প্রধান কারারক্ষী বাবুল মিয়াসহ ১৭ জনকে আসামি করা হয়েছে।

জেলা কারাগারের সামনে হামলা করে গত ২৯ সেপ্টেম্বর কারারক্ষীদের মারধর করার ঘটনায় বিশু ড্রাইভারসহ অন্যদের বিরুদ্ধে মামলা হওয়ার ৪দিন পর এই পাল্টা  মামলাটি দায়ের করা হলো।

সোমবার আদালতে দায়ের করা মামলায় অভিযোগ করা হয়, ২৯ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যার কিছুক্ষণ আগে জামিন পাওয়া আসামিদের আত্মীয়-স্বজনদের কাছ থেকে প্রধান কারারক্ষী বাবুল মিয়া, জাফর আলী ও সেলিম প্রকাশ্যে নগদ টাকা হাতিয়ে নিলে কারাগারের পার্শ্ববর্তী নৌহাটা এলাকার বাসিন্দা পরিবহন শ্রমিক নেতা আলমগীর হোসেন বিশু ড্রাইভারসহ কয়েকজন তার প্রতিবাদ করে। এতে কারারক্ষীদের সঙ্গে তার কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে তাদের কারা অঙ্গণ থেকে বের করে দেওয়া হয়। এরপর রাত সাড়ে ৮টার দিকে হঠাৎ বিশু ড্রাইভারকে জেল সুপারের কথা বলে ডেকে নিয়ে পিটিয়ে রক্তাক্ত করে। এরপর থানা পুলিশকে খবর দিয়ে তারা আহত শ্রমিকনেতা বিশু ড্রাইভারকে পুলিশে তুলে দেয়। পুলিশ বিশু ড্রাইভারের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করে। সে ৫ দিন ধরে সেখানেই চিকিৎসাধীন।

এ বিষয়ে শেরপুর জেলা কারাগারের জেল সুপার মজিবুর রহমানের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ২৯ সেপ্টেম্বর রাতে কারাগারের সংরক্ষিত এলাকায় বিশু ড্রাইভারসহ অন্যরা অনধিকার প্রবেশ করে। তারা ৫ জন কারারক্ষীকে মারধর করে। একই সময়ে ইটপাটকেল ছুঁড়ে কারাগারের অফিসের জানালার কাঁচ ভাংচুর করে। এ ব্যাপারে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশ মোতাবেক গত ৩০ সেপ্টেম্বর বিশু ড্রাইভারসহ ৮ জনের নামে এবং অজ্ঞাতনামা আরও ১০/১২ জনের নামে শেরপুর সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় মিথ্যা, বানোয়াট ও ভিত্তিহীন অভিযোগ এনে আদালতে কাউন্টার মামলা করা হয়েছে। মামলা থেকে বাঁচতে উদ্দেশ্য প্রণোদিত হয়ে এ মামলা করা হয়েছে।

বিডি-প্রতিদিন/এস আহমেদ

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow