Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : ১২ অক্টোবর, ২০১৬ ১৪:৫৮
মৎস্যজীবী সমিতির নেতাসহ ১০ জেলের কারাদণ্ড
লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি
মৎস্যজীবী সমিতির নেতাসহ ১০ জেলের কারাদণ্ড

নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে লক্ষ্মীপুরে মেঘনা নদীতে ইলিশ নিধনের দায়ে মৎস্যজীবী সমিতির এক নেতাসহ ১০ জেলেকে দুই বছর করে বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত। বুধবার দুপুরে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মোহাম্মদ নুরুজ্জামান এ দণ্ড দেন।

বুধবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত স্থানীয় মৎস্য বিভাগ, কোস্টগার্ড ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নদীতে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করে। এসময় পাঁচ হাজার মিটার কারেন্ট জাল, দুই কার্টুন ইলিশ ও একটি মাছ ধরার ট্রলার জব্দ করা হয়।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. নুরুজ্জামান জানান, সদর উপজেলার মেঘনা নদীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে ১০ জেলেকে আটক করে প্রত্যেককে দুই বছর করে বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেয়া হয়। এ সময় আটককৃত জালগুলো মজু চৌধুরীর হাট এলাকায় পুড়িয়ে দেয়াসহ মাছগুলো স্থানীয় এতিমখানায় বিতরণ করা হয়।

সাজাপ্রাপ্তরা হলেন, কমলনগর উপজেলার কালকিনি ইউনিয়ন মৎস্যজীবী সমিতির সভাপতি মো. আলাউদ্দিন (৩৮), চর সামছুদ্দিন গ্রামের মৃত আলতাফ হোসেনের ছেলে আবু তাহের (৫৬), চর কালকিনি গ্রামের লাল মিয়ার ছেলে মহি উদ্দিন (২৬), সদর উপজেলার মধ্য চর চরমনী গ্রামের মৃত ইব্রাহিম খলিলের ছেলে আলাউদ্দিন (৩৮), নোয়াখালীর পূর্ব মাছ ছড়া গ্রামের রুস্তুম আলীর ছেলে মো. মোস্তাফা(৫৮), সৈয়দ আহম্মদের ছেলে হোসেন আহম্মদ (৪৫), মৃত রুহুল আমিনের ছেলে মো. সিরাজ (৫২), শাহাদাৎ হোসেনের ছেলে মো. শাহাজাহান (৪৫), শাহজাহানের ছেলে মনির হোসেন (৩৬), ইদ্রিস মিয়ার ছেলে মো. আলাউদ্দিন (২৮)।  

উল্লেখ্য, ১২ অক্টোবর থেকে ২ নভেম্বর পর্যন্ত প্রজনন মৌসুম হওয়ায় নদীতে সব প্রকার মাছ ধরার উপরে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে সরকার। এ সময়ে মাছ শিকার, পরিবহণ, মজুদ ও বাজারজাতকরণ অথবা বিক্রি নিষিদ্ধ।  

 

বিডি প্রতিদিন/১২ অক্টোবর, ২০১৬/ফারজানা

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow