Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : ১২ অক্টোবর, ২০১৬ ১৬:০৬
বিদ্যালয় থেকে চাঁদা তুলে স্বর্ণের নৌকা উপহার!
মোরেলগঞ্জ প্রতিনিধি:
বিদ্যালয় থেকে চাঁদা তুলে স্বর্ণের নৌকা উপহার!

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে কয়েকটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে চাঁদা তুলে চেয়ারম্যান, ইউএনও ও শিক্ষা অফিসারকে যথাক্রমে স্বর্ণের তৈরী নৌকা, হরিণ ও শিক্ষা বিষয়ক মনোগ্রাম উপহার দেওয়া হয়েছে। উপজেলার নিশানবাড়িয়া ইউনিয়নের ১০৪নং পূর্ব গুলিশাখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আজ বুধবার এসব উপঢৌকন তুলে দেওয়া হয়।  

অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষকদের আনুষ্ঠানিক বিদায় ও ইউপি চেয়ারম্যানকে সংবর্ধনার নামে কর্মকর্তাদের আনুগত্য লাভের জন্য প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন।  

অনুষ্ঠানের মাঝামাঝি সময়ে বেলা ১২টায় আনুষ্ঠানিকভাবে স্বর্ণের তৈরী নৌকার একটি মনোগ্রাম পরিয়ে দেওয়া হয় ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আব্দুর রহিম বাচ্চুকে। স্বর্ণের তৈরী হরিণের মনোগ্রাম দেওয়া হয় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহাম্মদ ওবায়দুর রহমানকে এবং স্বর্ণের শিক্ষা মনোগ্রাম পরিয়ে দেওয়া উপজেলা শিক্ষা অফিসার মো. আনিসুর রহমানকে। আর এই উপঢৌকনের ব্যায় মিটানো হয়েছে শিক্ষকদের নিকট থেকে মোটা অংকের চাঁদা তুলে।  

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন। অনুষ্ঠানের প্রধান আকর্ষণ ঘোষনা করা হয় শিক্ষা অফিসারকে। সভাপতিত্ব করেন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যাপক মো. হাফিজুর রহমান। অনুষ্ঠানের মাঝামাঝি মাইকে ঘোষণা দিয়েই ওই তিন অতিথিকে স্বর্ণের মনোগ্রাম পরিয়ে দেওয়া হয়।  

জানা গেছে, নিশানবাড়িয়া ইউনিয়নে ২৭টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় রয়েছে। এ বিদ্যালয়গুলো হতে ২ থেকে ৭ হাজার টাকা পর্যন্ত চাঁদা তোলা হয়েছে চেয়ারম্যান, ইউএনও ও শিক্ষা অফিসারের জন্য তৈরী করা স্বর্ণালংকারের ব্যয় মেটাতে।  

অনুষ্ঠানস্থল ১০৪নং গুলিশাখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক দুলাল চন্দ্র মন্ডল বলেন, ‘আমি প্রথমে ২ হাজার টাকা দিয়েছি। পরে দিয়েছে আরও ৫ হাজার’। অনুষ্ঠানে উপস্থিত অপর একটি বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. সাইফুল ইসলাম টুটুল বলেন, 'আমি বিদ্যালয়ের পক্ষ হতে ২ হাজার টাকা দিয়েছে এই অনুষ্ঠানের জন্য। ' 

নাম প্রকাশ না করার শর্তে আরও ৪-৫ জন প্রধান শিক্ষক ও ১ জন প্রধান শিক্ষিকা বলেন, সকল বিদ্যালয়কে বাধ্যতামূলক ২ হাজার টাকা চাঁদা ধার্য করা হয়েছে এবং তা দিতে হয়েছে। ২৫৭নং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. জামাল হোসেন এই চাঁদার টাকা সংগ্রহ করেছেন বলে শিক্ষকরা জানান।  

স্বর্ণের নৌকা উপহার হিসেবে নেওয়ার বিষয়ে আওয়ামী লীগ বহু আগেই নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে। এরপরেও তা নিলেন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রহিম বাচ্চু। অপরদিকে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও শিক্ষা অফিসার কর্তৃক প্রকাশ্যে অনুষ্ঠানে শিক্ষকদের ব্যক্তিগত টাকার স্বর্ণালংকার গ্রহণের ঘটনা সকল মহলে প্রশ্নের সৃষ্টি করেছে।  

এ ঘটনায় সাধারণ শিক্ষক ও এলাকাবাসির মধ্যে ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। তবে কর্মস্থলে ঝামেলায় পড়ার ভয়ে প্রকাশ্যে কিছুই বলতে পারছেন না ভুক্তভোগী শিক্ষকরা। শোনা গেছে, মোরেলগঞ্জ শিক্ষা অফিসের প্রথা অনুযায়ী উপজেলার অপর ১৫টি ইউনিয়ন থেকেও কর্মকর্তাদের এমন সংবর্ধনা দিতে সকল শিক্ষকদেরকে বাধ্য করা হবে।  

 

বিডি প্রতিদিন/ ১২ অক্টোবর ২০১৬/ হিমেল 

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow