Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : ১৮ অক্টোবর, ২০১৬ ২১:৫৭
ধর্ষণ চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে দম্পতিকে কুপিয়ে জখম, মৃত ১
রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি:
ধর্ষণ চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে দম্পতিকে কুপিয়ে জখম, মৃত ১

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে ধর্ষণ চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে এক দম্পতিকে কুপিয়ে জখম করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনার সহিংসতা দেখে ইসমত আরা বেগম (৫৫) নামে এক বৃদ্ধার মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় উপজেলার সদর ইউনিয়নের জাঙ্গীর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।  

নিহত ইসমত আরা বেগম ওই এলাকার মৃত হেকমত ফকিরের স্ত্রী।  

এ ঘটনায় আহত স্বামী হোসেন ফকির জানান, জাঙ্গীর এলাকার সন্ত্রাসী শরীফ মিয়া বেশ কয়েক দিন ধরেই তার স্ত্রী সোনিয়া আক্তারকে কু-প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। বিষয়টি সোনিয়া আক্তার তার স্বামী হোসেন ফকিরকে জানান। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় হোসেন ফকির কু-প্রস্তাবের বিষয়টি নিয়ে প্রতিবাদ করেন। এক পর্যায়ে প্রতিপক্ষ শরীফ মিয়া, আরিফ মিয়া, সোহেল, গাজী, দিলু, জলিলসহ তাদের লোকজন ধারালো অস্ত্র নিয়ে হোসেন ফকিরের বাড়িতে গিয়ে তার স্ত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। খবর পেয়ে হোসেন ফকির ঘঁটনাস্থলে গিয়ে তার স্ত্রী সোনিয়া আক্তারকে বাঁচাতে এগিয়ে আসলে হামলাকারীরা তাদের দুই জনকেই কুপিয়ে ও পিটিয়ে গুরুতর জখম করে।  

এসময় হোসেন ফকিরের দাদি ইসমত আরা বেগম সহিংস এ ঘটনা দেখে ঘটনাস্থলেই হার্ট ফেল করে মারা যান। পরে হোসেন ফকিরের আড়াই বছরের মেয়ে সিনথিয়া আক্তার ভয়ে চিৎকার দিতে থাকে। এতে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে আসলে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। আহত হোসেন ফকির ও তার স্ত্রী সোনিয়াকে রূপগঞ্জ উপজেলা স্বাহ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

রূপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইসমাইল হোসেন বলেন, ধারণা করা হচ্ছে মারপিটের সময় আতঙ্কিত হয়ে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে ইসমত আরা বেগমের মৃত্যু হয়েছে। তারপরও আমরা তদন্ত করে দেখছি। এছাড়া অভিযুক্তদের আটকের চেষ্টা চলছে।  

এলাকাবাসী জানিয়েছেন, শরীফ মিয়া, আরিফ মিয়া, সোহেল, গাজী, দিলু, জলিলসহ তাদের লোকজন এলাকায় জমি জবরদখল, চাদাঁবাজি থেকে শুরু করে বিভিন্ন অপরাধমুলক কর্মকাণ্ড করে আসছে। এদের বিরুদ্ধে কেউ প্রতিবাদ করার সাহস টুকুও পায়না। এছাড়া এদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অপরাধে একাধিক মামলাও হয়েছে।  


বিডি প্রতিদিন/১৮ অক্টোবর ২০১৬/হিমেল

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow