Bangladesh Pratidin

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৭ অক্টোবর, ২০১৭

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৭ অক্টোবর, ২০১৭
প্রকাশ : ৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১৫:১০ অনলাইন ভার্সন
আপডেট :
শিমুল হত্যার প্রতিবাদে রাঙ্গামাটিতে মানববন্ধনে বক্তারা
'দেশে আজ গণমাধ্যম কর্মীরা নিরাপত্তাহীন'
ফাতেমা জান্নাত মুমু, রাঙামাটি:
'দেশে আজ গণমাধ্যম কর্মীরা নিরাপত্তাহীন'

সাংবাদিক শিমুল হত্যার প্রতিবাদ ও বিচার দাবিতে রাঙ্গামাটিতে মানববন্ধন করেছেন স্থানীয় সাংবাদিকরা। এ সময় তারা বলেন, দেশে একের পর এক সাংবাদিক হত্যাকাণ্ড ও নির্যাতনের ঘটনা ঘটছে

একটা হত্যাকাণ্ডেরও বিচার পায়নি সাংবাদিক পরিবারগুলো। তাই সাংবাদিক নির্যাতনের ঘটনা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। দেশে আজ গণমাধ্যম কর্মীরা নিরাপত্তাহীন। পেশাগত দায়িত্ব পালনকালে সাংবাদিক শিমুলের ওপর বর্বরোচিত গুলিবর্ষণ তারই প্রমাণ। এ ঘটনার বিচার না হলে মানুষ সরকারের ওপর থেকে আস্থা হারাবে।

বক্তরা বলেন, সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে সমকালের প্রতিনিধিকে নির্মমভাবে গুলি করে হত্যার ঘটনায় সারাদেশ বিক্ষোভে ফুসছে। অপরাধী পুলিশের সামনেই এ ঘটনা ঘটিয়েছে। কিন্তু দুঃখের বিষয় তিন দিনেও সে অপরাধীকে আইনের আওতায় আনা হয়নি। বক্তরা অপরাধীকে দ্রুত আইনের আওতায় এনে শাস্তির দাবি জানান

শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় রাঙামাটি জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে আয়োজিত মানববন্ধনে সমকাল রাঙামাটি প্রতিনিধি ছত্রং চাকমার সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, রাঙামাটি জেলা প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি ও দৈনিক গিরিদর্পণ সম্পাদক একেএম মকছুদ আহমেদ, প্রবীণ সাংবাদিক সুনীল কান্তি দে, রাঙামাটি জার্নালিষ্ট নেটওর্য়াকের সভাপতি শান্তিময় চাকমা, রাঙামাটি সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি নন্দন দেবনাথ, জার্নালিষ্ট নেটওর্য়াকের সাধারণ সম্পাদক ফাতেমা জান্নাত মুমু, রাঙামাটি সাংবাদিক এসোসিয়েসনের সাধারণ সম্পাদক মো. দীপ্ত হান্নান প্রমুখ।

মানববন্ধনে বক্তরা আরও বলেন, স্বাধীন দেশে স্বাধীন পেশার কন্ঠরোধ করার চেষ্টা করছে কিছু অপশক্তি। যে মেয়র জনগণের ভোট নিয়ে দেশে শান্তি প্রতিষ্ঠা করার প্রতিশ্রুতি দিয়ে ক্ষমতাগ্রহণ করেছেন, সেই মেয়র এখন শান্তি বিনষ্টকারী হিসেবে চিহ্নিত। বক্তরা বলেন, কোন অপরাধী আইনের ঊর্ধ্বে নয়। অপরাধীকে তার অপরাধের শাস্তি পেতে হবে। বক্তারা হুশিয়ারী দিয়ে বলেন, অবিলম্বে শিমুলের হত্যার সাথে জড়িত মেয়রকে গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেওয়া না হলে বৃহত্তর কর্মসুচি ঘোষণা করবে সাংবাদিক সমাজ।

ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধনে ইলেকট্রোনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ার সংবাদকর্মী ছাড়াও রাঙামাটির বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ অংশগ্রহণ করেন।


বিডি-প্রতিদিন/এস আহমেদ

আপনার মন্তব্য

up-arrow