Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বুধবার, ২৩ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, বুধবার, ২৩ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : ৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১৮:৪৮ অনলাইন ভার্সন
আপডেট :
ভুল স্বীকার করে আহত ছাত্রদের চিকিৎসার দায়িত্ব নিল বাস মালিক সমিতি
এস এম রেজাউল করিম, ঝালকাঠি:
ভুল স্বীকার করে আহত ছাত্রদের চিকিৎসার দায়িত্ব নিল বাস মালিক সমিতি

রাজাপুরে চলন্ত বাস থেকে ৪ ছাত্রকে ফেলে দিয়ে আহত করার ঘটনায় সমঝোতা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় রাজাপুর ডিগ্রী কলেজ সভাকক্ষে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

বৈঠকে মালিক সমিতি নেতারা দোষী শ্রমিকদের বিচার ও আহত ছাত্রদের চিকিৎসার ব্যায়ভার গ্রহণ করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। সকাল ১১টা থেকে দুপুর ১২: ৩০ মিনিট পর্যন্ত চলা এই বৈঠকে উভয় পক্ষই শান্তিপূর্ণ সমাধানের পথ খুঁজতে আলোচনা করেন।

বৈঠকে আন্ত:জেলা বাস ও মিনিবাস মালিক সমিতির পক্ষে সাধারণ সম্পাদক মিলন মাহমুদ ও সহসাধারণ সম্পাদক মো. নাসির উদ্দিন, আন্ত:জেলা বাস ও মিনিবাস শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মজিবুর রহমান ও সম্পাদক বাহাদুর চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন। অপরদিকে ছাত্রদের পক্ষে কলেজ অধ্যক্ষ গোলাম বারী ও আহত ছাত্রদের স্বজনরা ও ছাত্রনেতারা উপস্থিত ছিলেন। বৈঠক শেষে দুপক্ষই উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে আহত ছাত্রদের দেখতে যান। এসময় আহত ছাত্রদের চিকিৎসার খোঁজ নেন এবং প্রয়োজনে আরো উন্নত চিকিৎসার প্রতিশ্রুতি দেন মালিক সমিতির নেতারা।
 
উল্লেখ্য, গত মঙ্গলবার দুপুরে ঝালকাঠি-ভান্ডারিয়া রুটে চলা নূর-নোহা নামের একটি গাড়িতে রাজাপুর ডিগ্রি কলেজের চার ছাত্র গালুয়া যাওয়ার জন্য ওঠে। উপজেলার কৈবর্তখালী এলাকায় একটি গতিরোধকে গাড়ির গতি না কমানোয় ধাক্কা লেগে গিয়াস ও মেজবাহ নামে দুই ছাত্রের মাথা ফেঁটে যায়। এঘটনায় বাস শ্রমিক ও ছাত্রদের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। পরে ছাত্ররা গালুয়া বাজারের কাছে নামতে চাইলে তাদের গাড়ি থেকে ফেলে দেওয়া হয়। এমন ঘটনার প্রতিবাদে বুধবার রাজাপুর ডিগ্রি কলেজের সামনে ছাত্ররা সড়ক অবরোধ করে। অবরোধ চলাকালে রাজাপুর থানার ওসি মুনির উল গিয়াসের নেতৃত্বে পুলিশ ছাত্রদের লাঠিচার্জ করে বিচ্ছিন্ন করে দেয়। এসময় পুলিশের পিটুনিতে ৬ ছাত্র আহত হয়।  

বিডি প্রতিদিন/এ মজুমদার

 

আপনার মন্তব্য

up-arrow