Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ২০ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, রবিবার, ২০ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১৯:৪৩ অনলাইন ভার্সন
আপডেট :
রাজশাহীর পুঠিয়া পৌরসভা নির্বাচন
উচ্চ আদালতেও রবির পক্ষে রায়
নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী:
উচ্চ আদালতেও রবির পক্ষে রায়

রাজশাহীর পুঠিয়া পৌরসভার মেয়র পদে আওয়ামী লীগের প্রার্থী মো. রবিউল ইসলাম রবিকে বিজয়ী ঘোষণা করে দেওয়া নির্বাচনী ট্রাইব্যুনালের আদেশ বহাল রেখেছেন নির্বাচনী আপীল ট্রাইব্যুনাল।

সোমবার দুপুর সাড়ে ১২টায় রাজশাহীর নির্বাচনী আপীল ট্রাইব্যুনালের বিচারক এবং জেলা ও দায়রা জজ মুহম্মদ মাহবুবু-উল হক এ আদেশ দেন।

একই সঙ্গে বিচারক আপীলের রায়ের অনুলিপির সত্যায়িত কপি প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন।

উল্লেখ্য, ২০১৫ সালের ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত পুঠিয়া পৌরসভার নির্বাচনে বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী আসাদুল হককে (ধানের শীষ) ২৭১ ভোটে বিজয়ী ঘোষণা করেন রিটার্নিং অফিসার। রিটার্নিং অফিসারের ওই আদেশের বিরুদ্ধে পরাজিত মেয়র প্রার্থী রবিউল ইসলাম রবি রাজশাহীর নির্বাচনী ট্রাইব্যুনালে মামলা (৪/২০১৬) করেন। মামলার শুনানী চলাকালে বিবাদী ধানের শীষ প্রতীকের বিজয়ী ঘোষিত মেয়র আসাদুল হক এবং বাদি নৌকা প্রতীকের মেয়র প্রার্থী রবিউল ইসলাম রবি ভোট পুন:গণনার ফলাফল মেনে নেবেন বলে এফিডেভিটের মাধ্যমে ট্রাইব্যুনালে অঙ্গীকার প্রদান করেন। এরপর গত বছরের ২৪ নভেম্বর নির্বাচনী ট্রাইব্যুনালে উভয়পক্ষের আইনজীবী ও আদালতের বিচারকের উপস্থিতিতে পুঠিয়া পৌরসভার মেয়র পদের ভোট সীলগালাকৃত ব্যালট বাক্স খুলে পুন:গণনা করা হয়। পুন:গণনা শেষে মোট বৈধ ভোট সংখ্যা ১১ হাজার ৫৫১টি এবং অবৈধ ভোটের সংখ্যা ৪৫২টি ঘোষিত হয়। নির্বাচনী ট্রাইব্যুনালে ভোট পুন:গণনায় দেখা যায়, রবিউল ইসলাম রবি নৌকা প্রতীকে ৪ হাজার ১৪২ ভোট পেয়েছেন। ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী আসাদুল হক ৪ হাজার ৮৩টি ভোট পেয়েছেন। ফলে ৫৯ ভোটে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী রবিউল ইসলাম রবিকে বিজয়ী ঘোষণা করেন নির্বাচনী ট্রাইব্যুনালের বিচারক গোলাম কবির। একই সঙ্গে রবিউল ইসলাম রবিকে পুঠিয়া পৌরসভার মেয়র পদে বিজয়ী ঘোষণার আদেশের অনুলিপি সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং অফিসারের কাছে পাঠানোর নির্দেশ দেন নির্বাচনী ট্রাইব্যুনালের বিচারক।

এদিকে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী রবিউল ইসলাম রবিকে বিজয়ী ঘোষণা করে নির্বাচনী ট্রাইব্যুনালের আদেশের বিরুদ্ধে আসাদুল হক গত ১৩ জানুয়ারি নির্বাচনী আপীল ট্রাইব্যুনালের বিচারক এবং জেলা ও দায়রা জজ মুহম্মদ মাহবুব-উল হক এর আদালতে আপীল করেন। ওই আপীলের শুনানীর শেষ পর্যায়ে আপীলকারী আসাদুল হক নির্বাচনী আপীল ট্রাইব্যুনালে চলমান বিচারিক কার্যক্রম স্থগিত চেয়ে হাইকোর্টে একটি সিভিল রিভিশন (১০৩/২০১৭) দাখিল করেন।

গত ২৬ জানুয়ারি হাইকোর্টের বিচারপতি এমদাদুল হক আজাদ একক বেঞ্চে শুনানী শেষে রাজশাহীর নির্বাচনী আপীল ট্রাইব্যুনালে চলমান বিচারিক কার্যক্রম তিন মাসের জন্য স্থগিত ঘোষণা করেন। হাইকোর্টের ওই স্থগিতাদেশের বিরুদ্ধে বিজয়ী ঘোষিত রবিউল ইসলাম রবি সুপ্রীমকোর্টের আপীল বিভাগে সিভিল পিটিশন ফর লিভ টু আপীল (৪৫৭/২০১৭) দাখিল করেন। গত ৬ ফেব্রুয়ারি প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা এর নেতৃত্বে সুপ্রীমকোর্টের আপীল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চে শুনানী শেষে হাইকোর্ট একক ডিভিশন বেঞ্চের স্থগিতাদেশ সর্বসম্মতিক্রমে স্থগিতের আদেশ দেন।

আপীল বিভাগের শুনানীতে সুপ্রীমকোর্টের বিচারপতি সৈয়দ মোহাম্মদ হোসেইন, বিচারপিত হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী ও বিচারপিত মির্জা হোসেন হায়দার অংশগ্রহণ করেন। সুপ্রীমকোর্টের আপীল বিভাগের ওই স্থগিতাদেশের কপি পৌঁছানোর পর সোমবার নির্বাচনী আপীল ট্রাইব্যুনাল রবিউল ইসলাম রবিকে পুঠিয়া পৌরসভার মেয়র পদে বিজয়ী ঘোষণা করে আগের দেওয়া আদেশ বহাল রাখেন। বাদীপক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট মো. আতাউর রহমান। বিবাদী পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট আলী আকবর প্রামাণিক।

এদিকে নির্বাচনী আপীল ট্রাইব্যুনালের ঘোষিত রায়ের পর দরখাস্তকারী রবিউল ইসলাম রবির মেয়র পদে বসতে আর কোনো বাধা নেই বলে জানিয়েছেন তার আইনজীবী মো. আতাউর রহমান।

বিডি প্রতিদিন/ সালাহ উদ্দীন

আপনার মন্তব্য

up-arrow