Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১৬:১৮ অনলাইন ভার্সন
আপডেট :
স্বরূপকাঠীতে শিক্ষককে বিবস্ত্র করে ছবি তোলার ঘটনায় মানববন্ধন
রাহাত খান, বরিশাল:
স্বরূপকাঠীতে শিক্ষককে বিবস্ত্র করে ছবি তোলার ঘটনায় মানববন্ধন

পিরোজপুরের স্বরূপকাঠী উপজেলার মৈশানী বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক বিধান চন্দ্র সরকারকে বিবস্ত্র করে ছবি তোলার প্রতিবাদে অভিযুক্তদের শাস্তির দাবিতে বরিশালে মানববন্ধন করেছে বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি। সংগঠনের বরিশাল আঞ্চলিক শাখার উদ্যোগে আজ সকাল ১১ টায় নগরীর সদর রোডের অশ্বিনী কুমার হলের সামনে এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

 

শিক্ষক সমিতি আঞ্চলিক শাখার সভাপতি ফরিদুল আলমের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, সাবেক সভাপতি দাসগুপ্ত আশিষ কুমার, বর্তমান সাধারণ সম্পাদক তোফায়েল আহম্মেদ, আব্দুল মালেক, রফিকুল ইসলাম, আবুল কালাম, এইচএম জসিমউদ্দিন, মো. ফরিদ উদ্দিন, মাওলানা আবদুস ছালাম ও মনিরুজ্জামান সেলিমসহ অন্যান্যরা। মানববন্ধনে বক্তারা মৈশানী বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক বিধান চন্দ্র সরকারকে লাঞ্চিতকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।  

সাতক্ষীরা জেলার বাসিন্দা বিধান চন্দ্র সরকার এন.টি.আর.সি’র মাধ্যমে নিয়োগপ্রাপ্ত হয়ে গত ২৪ নভেম্বর স্বরূপকাঠীর মৈশানী বালিকা বিদ্যালয়ে যোগদান করেন। তিনি বিদ্যালয় সংলগ্ন একটি ঘরে একা থাকতেন। গত ৩ ফেব্রুয়ারি এক ছাত্রীর সঙ্গে অনৈতিক সম্পর্কের অজুহাত তুলে স্থানীয় চিহিৃত সন্ত্রাসী নয়ন গাজী ও তার সহযোগীরা বিধান চন্দ্রকে আটকে রাতভর নির্যাতন করে এবং বিবস্ত্র করে বেঁধে রাখে। এসময় তার নগ্ন ছবি তোলে তারা। পরদিন বিদ্যালয়ের অন্য শিক্ষকরা সন্ত্রাসীদের লেখা মুচলেখায় স্বাক্ষর দিয়ে বিধানকে মুক্ত করেন। বর্তমানে তিনি আত্মগোপনে থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন। বিষয়টি গণমাধ্যমে উঠে আসার পর চাপের মুখে ৪ দিন পর পুলিশ বাদী হয়ে বখাটে সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে স্বরূপকাঠী থানায় একটি মামলা দায়ের করে।  এ ঘটনায় মাইনুল ও শিতুল নামে ২ জনকে পুলিশ গ্রেফতার করলেও মূল আসামি নয়ন গাজী এখনো পলাতক রয়েছে।

বিডি প্রতিদিন/এ মজুমদার

আপনার মন্তব্য

up-arrow