Bangladesh Pratidin

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৪ অক্টোবর, ২০১৭

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৪ অক্টোবর, ২০১৭
প্রকাশ : ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১৩:০৮ অনলাইন ভার্সন
আপডেট :
রাস্তা পরিস্কারে ফরিদপুরে এফডিএ’র ব্যতিক্রমী উদ্যোগ
ফরিদপুর প্রতিনিধি:
রাস্তা পরিস্কারে ফরিদপুরে এফডিএ’র ব্যতিক্রমী উদ্যোগ

বে-সরকারী উন্নয়ন সংস্থা ফরিদপুর ডেভেলপমেন্ট এজেন্সী (এফডিএ) ব্যতিক্রমী উদ্যোগ হাতে নিয়েছে। ফরিদপুর শহরের ব্যস্ততম প্রধান সড়কের আবর্জনা, বালি পরিস্কার করতে এফডিএ’র কর্মীরা অফিস শেষে রাস্তায় নেমেছে ঝাড়ু, বেলচা, কোদাল নিয়ে।

 

এদিকে এফডিএ’র এ প্রচেষ্টাকে সাধুবাদ জানিয়েছে ফরিদপুরবাসী। ফরিদপুর শহরের ব্যস্ততম সিএন্ডবি ঘাট থেকে টেপাখোলা পর্যন্ত প্রায় তিন কিলোমিটার এ সড়কটি দিয়ে প্রতিদিন মাটি-বালু টানার কয়েকশ ট্রাক যাতায়াত করে। এছাড়া বেশকিছু ইটভাটা থাকার কারণে প্রতিদিনই মাটি নিয়ে ট্রাকগুলো এ সড়ক দিয়ে যাতায়াত করে। এসব ট্রাকের মাটি-বালু রাস্তায় পড়ে জনসাধারণের যাতায়াতের নানা প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি হচ্ছে।  

এছাড়া ধুলো উড়িয়ে ট্রাক চলাচলের কারণে এ সড়কটি দিয়ে যাতায়াতকারী সাধারণ মানুষ, স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা বেশ বিড়ম্বনার মধ্যে পড়ছে। ধুলো-বালির কারণে রাস্তার পাশ্ববর্তী দোকান ও বাসা বাড়ীতে ধুলো-বালিতে সয়লাব হচ্ছে। ফলে ছড়িয়ে পড়ছে নানা ধরনের রোগ জীবানু।  

সিএন্ডবি ঘাট, টেপুরাকান্দি ও টেপাখোলার কয়েক হাজার বাসিন্দা দীর্ঘদিন ধরে এ সমস্যায় ভুগলেও কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলেও কোন ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। স্থানীয়দের কষ্ট লাঘবে এগিয়ে এসেছে এফডিএ।

এফডিএ’র কর্মীরা তাদের অফিস শেষ করে বিকেল থেকে সন্ধ্যা অবধি রাস্তায় জমে থাকা মাটি-বালু পরিস্কার করতে নামেন।  

বুধবার বিকেল থেকে এফডিএ’র ৬০ জন কর্মী রাস্তা পরিস্কার পরিচ্ছন্নতার কাজে নেমে পড়েন।  এফডিএ’র পরিচালক মোঃ আজহারুল ইসলাম জানান, দীর্ঘদিন ধরে সিএন্ডবি ঘাট এলাকার মানুষ ধুলো-বালিজনিত রোগে ভুগছে। সব সময় ব্যস্ততম এ সড়কটি দিয়ে হাজার হাজার মানুষ যাতায়াত করে। প্রতিদিন কয়েকশ' ট্রাক ধুলো উড়িয়ে চলার কারণে মানুষের নানা কষ্ট হচ্ছে। দোকানের খাবার এবং বাড়ীর ভাত-তরকারীও ধুলোর কারণে নষ্ট হচ্ছে। দীর্ঘদিনের এ সমস্যাটি নিয়ে কেউ এগিয়ে আসেনি। মানবিক দিক বিবেচনা করে আমার অফিসের স্টাফদের অফিস শেষে রাস্তা পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতার কাজে নামিয়েছি। সবাই যদি তাদের বাড়ী কিংবা দোকানের সামনের রাস্তাটি পরিস্কার রাখতে পারে তাহলে কিছুটা হলেও কষ্ট লাঘব হবে।  

তিনি আরো জানান, প্রশাসনের উচিত এ বিষয়টিতে দৃষ্টি দেয়া। কারণ ধুলো-বালির কারণে এ অঞ্চলের হাজার হাজার মানুষ নানা রোগে আক্রান্ত হচ্ছে। দিনের বেলা ট্রাক চলাচল বন্ধ করা কিংবা ট্রাকে মাটি-বালু আনা নেবার ক্ষেত্রে ত্রিপল দিয়ে ঢেকে নেবার ব্যবস্থা করা হলে জনগণ উপকৃত হবে।  


বিডি প্রতিদিন/১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৭/হিমেল

আপনার মন্তব্য

up-arrow