Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বুধবার, ১৮ অক্টোবর, ২০১৭

ঢাকা, বুধবার, ১৮ অক্টোবর, ২০১৭
প্রকাশ : ১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১৬:১০ অনলাইন ভার্সন
আপডেট :
প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় কীটনাশক পান করিয়ে হত্যা
ঝিনাইদহ প্রতিনিধি
প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় কীটনাশক পান করিয়ে হত্যা

ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুরে প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় রিমা ওরফে রিপনা খাতুন (১২) নামে এক স্কুল ছাত্রীকে জোরপূর্বক কীটনাশক পান করিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় থানায় ৫ জনকে আসামি করে মামলা করেছে নিহতের পরিবার।

এ ঘটনায় পুলিশ ২ নারীকে আটক করেছে। ঘটনার পর থেকে মূল আসামি নাজমুল পলাতক রয়েছেন।

রিপনা খাতুন উপজেলার ফাজিলপুর গ্রামের রিপন হোসেনের মেয়ে। তিনি আসাননগর-কুল্লাগাছা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণির ছাত্রী ছিলেন। অভিযুক্ত নাজমুল সদর উপজেলার মির্জাপুর গ্রামের আলম হোসেনের ছেলে। তিনি কোটচাঁদপুর উপজেলার ফাজিলপুর গ্রামের নানা মৃত সিরাজ বিশ্বাসের বাড়িতে থাকতো।

মেয়ে রিপনার দাদা শুকুর আলী জানান, বখাটে নাজমুল তাদের রিমা ওরফে রিপনাকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে উত্ত্যক্ত করতো। এ ঘটনায় তিনি এবং রিপনার বাবা আসাননগর-কুল্লাগাছা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের কাছেও দুইবার অভিযোগ দিয়েছেন। স্কুলে যাবার সময় রিপনাকে বখাটে নাজমুল বিভিন্নভাবে উত্ত্যক্ত করত।

সেই সঙ্গে হত্যার হুমকি দিতো। বুধবার রাতেও রিপনাকে তুলে নিয়ে গিয়ে নাজমুল প্রেমের প্রস্তাব দেয়। রাত ৮টার দিকে নাজমুল ও তার বন্ধু আলমগীর হোসেন বাড়ির পাশে একা পেয়ে রিপনাকে অপহরণ করে ওই গ্রামের একটি কাঁঠালবাগানে নিয়ে যায়।  

তিনি আরও জ়ানান, রাত ১টার দিকে অপহরণকারীরা তাকে বাড়ির পাশে রেখে আসে। বিষয়টি ওই রাতে রিপনা তার পরিবারকে জানায়। বৃহস্পতিবার দুপুরে বিষয়টি নিয়ে নাজমুলের পরিবারের সঙ্গে রিপনার পরিবারের লোকজনের বিবাদ শুরু হয়। এই সুযোগে রিপনা ঘরে একা থাকায় নাজমুল ও তার এক সহযোগী রিপনাকে জোরপূর্বক কীটনাশক পান করিয়ে পালিয়ে যায়। পরিবারের লোকজন টের পেয়ে রিপনাকে কোটচাঁদপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা করে। পরে অবস্থার অবনতি হলে যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করা হলে শনিবার ভোরে সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়।

রিপনার বাবা রিপন হোসেন জানান, "কোটচাঁদপুর হাসপাতালে রিপনা চিকিৎসকের সামনেই জানায় নাজমুল তার মুখে কীটনাশক ঢেলে দিয়েছে। তিনি তার মেয়ে হত্যার বিচার চান। "

আসাননগর-কুল্লাগাছা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নাজমুর রহমান বলেন, "বিষয়টি নিয়ে রিমা ওরফে রিপনার অভিভাবক আমাদের বেশ কয়েকবার জানিয়েছিল। কিন্তু কোনো পদক্ষেপ নেয়া হয়নি। মেয়েটি খুব মেধাবী ছিল। "

কোটচাঁদপুর থানার ওসি জানান, "বৃহস্পতিবার রিমাকে নামজুল ও তার সহযোগীরা মুখে কীটনাশক ঢেলে হত্যার চেষ্টা করে। তাকে উদ্ধার করে যশোরে হাসপাতালে ভর্তি করা হলে শনিবার ভোরে মারা যায়। "

তিনি আরও জানান, "বৃহস্পতিবার বিকেলে এ বিষয়ে রিপনার বাবা থানায় মৌখিক অভিযোগ দিলে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নাজমুলের খালা রেশমা ও সুমাকে আটক করা হয়। এ ঘটনায় কোটচাদপুর থানায় ৫ জনের নামে একটি মামলা হয়েছে। "

 

বিডি-প্রতিদিন/ ১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭/ আব্দুল্লাহ সিফাত-১৭

আপনার মন্তব্য

up-arrow