Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ১৮ নভেম্বর, ২০১৭

ঢাকা, শনিবার, ১৮ নভেম্বর, ২০১৭
প্রকাশ : ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১৯:০৯ অনলাইন ভার্সন
আপডেট : ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১৯:১১
'বঙ্গবন্ধুকন্যা চায় ভিক্ষা দেব, বিএনপি চায় ভিক্ষা নেব'
কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি:
'বঙ্গবন্ধুকন্যা চায় ভিক্ষা দেব, বিএনপি চায় ভিক্ষা নেব'

জনগণের কাছে প্রশ্ন রেখে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কন্যা শেখ হাসিনা চায় এদেশ থেকে ভিক্ষা দেব, আর বিএনপি চায় ভিক্ষা নেব। এখন আপনারাই ঠিক করবেন, কাকে ভোট দিবেন।

যারা ভিক্ষা দিতে পারবেন তাদেরকে, না যারা ভিক্ষা নিতে চায় তাদেরকে।

রবিবার দুপুরে কুড়িগ্রামের ভুরুঙ্গামারী উপজেলা পরিষদ চত্ত্বরে বিশ্ব ব্যাংকের সহায়তায় স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের যত্ন প্রকল্প ও জয়মনিরহাটে ইউএনডিপির সহায়তায় স্বপ্ন প্রকল্পের কার্যক্রম পরিদর্শনে এসে তিনি এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী আরও বলেন, অতি দরিদ্র অন্তঃসত্ত্বা নারী ও ৫ বছরের কম বয়সী শিশু ও তাদের মায়ের স্বাস্থ্য রক্ষায় বিশ্ব ব্যাংকের সহায়তায় ২ হাজার ৩শ' ৭৭ কোটি টাকা ব্যায়ে এ প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হবে। এ প্রকল্পের আওতায় ৭ জেলার ৪৩ উপজেলার ৪৪৩টি ইউনিয়নের ৬ লক্ষাধিক মা ও শিশু এ সুবিধা পাবেন।

এ সময় তিনি এ প্রকল্পের উপকার ভোগীদের মাঝে ইলেক্ট্রনিক্স পদ্ধতিতে অর্থ প্রদান কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, বিশ্ব ব্যাংকের ক্যান্ট্রি ডিরেক্টর মি. চিয়ামিয়াও ফান, স্থানীয় সংসদ সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান, স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের সচিব আব্দুল মালেক, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. জাফর আলী, জেলা প্রশাসক খান মো. নুরুল আমিন প্রমুখ।

পরে তিনি ভুরুঙ্গামারীর জয়মনিরহাট ইউনিয়নে ইউএনডিপি’র সহায়তায় স্থানীয় সরকার মন্ত্রনালয়ের স্বপ্ন প্রকল্পের স্বপ্নকর্মীদের মাঝে শেলাই মেশিন বিতরণ, সড়ক নির্মাণ ও বৃক্ষ রোপন কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন।


উল্লেখ্য, স্বপ্ন প্রকল্পের মাধ্যমে কুড়িগ্রাম জেলার ৭২টি ইউনিয়নের ২হাজার ৫শ’ ৯২ জন দুস্থ মহিলার কর্মসংস্থান হয়েছে। আশা করা হচ্ছে এই প্রকল্প দেশের দারিদ্র্য বিমোচনে অগ্রণী ভূমিকা রাখবে।

বাংলাদেশ সরকার, ইউএনডিপি, স্প্যানিশ সরকার, আইএলও এবং বিএসআরএম এর অর্থায়নে প্রকল্পটি স্থানীয় সরকার বিভাগ বাস্তবায়ন করছে। কুড়িগ্রাম জেলায় স্থানীয় ভাবে বাস্তবায়ন সহযোগী হিসেবে কাজ করছে ইএসডিও।

বিডি-প্রতিদিন/১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭/মাহবুব

 

আপনার মন্তব্য

এই পাতার আরো খবর
up-arrow