Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ২০ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, রবিবার, ২০ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১৭:১৫ অনলাইন ভার্সন
আপডেট : ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১৭:২৮
রাজাপুর উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি রুবেল দখল চেষ্টা মামলায় কারাগারে
ঝালকাঠি প্রতিনিধি:
রাজাপুর উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি রুবেল দখল চেষ্টা মামলায় কারাগারে
রাজাপুর উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি আহসান হাবিব রুবেল

ঝালকাঠির রাজাপুরে রাতে ঘুমন্ত অবস্থায় এক পরিবারের বসতঘরে হামলা ও দখল চেষ্টার অভিযোগে গ্রেফতার হওয়া উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি আহসান হাবিব রুবেলকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ ও অপর দুইজনকে জামিনে মুক্তি দিয়েছেন আদালত।

সোমবার দুপুরে ঝালকাঠির জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম আদালতের বিচারক রুবাইয়া আমেনা এ আদেশ দেন।

এ ছাড়া ঘটনাস্থল থেকে আটক রুবেলের মাসহ অন্য দুইজনকে থানা থেকে ছেড়ে দিয়েছে পুলিশ।

এদিকে হামলা ভাংচুর ও জমি দখল চেষ্টার অভিযোগে নির্যাতিত সাহেরা বেগম বাদি হয়ে রবিবার রাতে রাজাপুর উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতিসহ ১৪ জনের নাম উল্লেখ এবং অজ্ঞাত ২৫ জনকে আসামি করে রাজাপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

মামলার বিবরণে জানাযায়, শনিবার দিবাগত রাত চারটার দিকে রাজাপুর উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতির নেতৃত্বে ৫০/৬০ জনের একটি সন্ত্রাসী দল স্থানীয় ডিগ্রি কলেজের পশ্চিম পাশে ফারুক সিকদারের বসতঘরে ঘুমন্ত অবস্থায় হামলা চালায়। এদের মধ্যে কয়েকজন মুখোশ পড়া ছিল। কিছু বুঝে ওঠার আগেই হামলাকারীরা বসত ঘরে ভাংচুর চালিয়ে এবং লোহার রড দিয়ে এলোপাথারি পেটাতে থাকে। হামলায় পরিবারের ৭ সদস্য আহত হয়। হামলাকারীরা ঘরের মূল্যবান মালামাল লুট করে নেয় বলেও ক্ষতিগ্রস্তরা অভিযোগ করেন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে রাজাপুর উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতিসহ পাঁচজনকে আটক করে। আটকের ২ এদের মধ্যে ঘণ্টা পর রুবেলের মা মামলার আসামি তিনজন উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি আহসান হাবিব রুবেল (৩২), আবু ছালেহ (২৮) ও রাসেলকে (২৬) আদালতে প্রেরণ করলে ছাত্রলীগ সভাপতি আহসান হাবিব রুবেলকে কারাগারে পাঠানো হয়। এবং অপর দুই আবু ছালেহ (২৮) ও রাসেলকে (২৬)কে জামিনে মুক্তি দিয়েছেন আদালত। এ ছাড়াও পুলিশ  অন্য দুইজনকে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ছেড়ে দেয় পুলিশ।
এ ব্যাপারে রাজাপুর থানা পরিদর্শক (তদন্ত) হারুন অর রশীদ জানান, জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তিনজনকে আদালতে পাঠানো হয়েছে। অপর আটককৃতদের ছেড়ে দেয়া হয়েছে। মামলার আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

রাজাপুর থানার সেকেন্ড অফিসার এসআই কালাম জানান, রুবেলের বিরুদ্ধে ২০১১ সালে ৬ অক্টোবর হামলা ভাংচুরের ঘটনায় মামলা দায়ের হয়। ২০১৫ সালের ১৬ জানুয়ারী ভাংচুর, লুটপাট ও মারামারির ঘটনায় আসামী করা হয় রুবেলসহ তার পরিবারের সদস্যদের। একই ধারায় ২০১৪ সালের ১২ নভেম্বর রাজাপুর থানার ৫ নম্বর মামলার আসামি করা হয় রুবেলকে। কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ নেতা মনিরুজ্জামান মনিরের ছোট ভাই উপজেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সাইফুজ্জামান রুবেলকে হত্যা চেষ্টা মামলায় দির্ঘদিন যাবত জেল খাটেন আহসান হাবিব রুবেল। এ ছাড়াও তার বিরুদ্ধে প্রায় অর্ধ ডজন মামলা ও অনেক সাধারণ ডায়েরি রয়েছে।

বিডি প্রতিদিন/ সালাহ উদ্দীন

আপনার মন্তব্য

up-arrow