Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বুধবার, ২৩ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, বুধবার, ২৩ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১৮:০০ অনলাইন ভার্সন
আপডেট :
সিরাজগঞ্জে কন্যাশিশু হত্যার দায়ে পিতাসহ ৫ জনের যাবজ্জীবন
সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি:
সিরাজগঞ্জে কন্যাশিশু হত্যার দায়ে পিতাসহ ৫ জনের যাবজ্জীবন

সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জে কন্যা শিশু হত্যার দায়ে পিতাসহ একই পরিবারের ৫ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এছাড়াও প্রত্যেককে ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ১ বছরের বিনাশ্রম কারাদণ্ডাদেশ প্রদান করা হয়।

সোমবার বিকেল সাড়ে ৪টায় সিরাজগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ মোঃ জাফরোল হাসান আসামিদের উপস্থিতিতে এ রায় প্রদান করেন।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলো, রায়গঞ্জ উপজেলার সরাইদহ গ্রামের শাহজাহান আলীর ছেলে ও শিশু কন্যার পিতা হাবিবুর রহমান হবি, তার ছোট ভাই বিশা সেখ, হবিবরের ফুফা আয়নাল শেখ, তার স্ত্রী মনোয়ারা বেগম ও ফুফাতো বোন একই গ্রামের আব্দুস সালামের স্ত্রী বিলকিস বেগম।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ২০০৪ সালে হাবিবুর রহমান একই গ্রামের ফিরোজা বেগমকে বিয়ে করেন। কিন্তু বিয়ের পর থেকে নানা বিষয়ে পারিবারিক দ্বন্দ্বের কারণে হবিবর স্ত্রী ফিরোজা বেগমকে তালাক দেন। এ অবস্থায় ফিরোজা বেগম সাত বছর বয়সী শিশু কন্যা কাকলীকে নিয়ে বাবার বাড়িতে চলে যান। কিন্তু হাবিবুর রহমান তার সম্পত্তির ওয়ারিশ শিশু কন্যা কাকলীকে দিতে না হয় সে জন্য শিশুটিকে হত্যার জন্য বিভিন্নভাবে পরিকল্পনা করতে থাকে। এরই এক পর্যায়ে ২০১১ সালের ১১ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় হাবিবুরসহ অন্যান্য আসামিরা তার কন্যা কাকলীকে নিজ বাড়ি ডেকে নিয়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যার পর পালিয়ে যান।
এ ঘটনায় নিহতের মা ফিরোজা বেগম বাদি হয়ে ৮ জনকে আসামি করে রায়গঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা তদন্ত শেষে দণ্ডপ্রাপ্ত ৫ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। দীর্ঘ শুনানী শেষে আদালত সোমবার বিকেলে এ রায় প্রদান করেন।
মামলায় রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবি ছিলেন সিরাজগঞ্জ জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর অ্যাডভোকেট আব্দুর রহমান ও আসামি পক্ষের আইনজীবি ছিলেন অ্যাডভোকেট রেজাউল করিম তালুকদার।

বিডি প্রতিদিন/ সালাহ উদ্দীন

আপনার মন্তব্য

up-arrow