Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ২০ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, রবিবার, ২০ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০৯:৪৩ অনলাইন ভার্সন
আপডেট :
পুলিশের কাছ থেকে পালাতে গিয়ে এক ব্যক্তির মৃত্যু
সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধিঃ
পুলিশের কাছ থেকে পালাতে গিয়ে এক ব্যক্তির মৃত্যু

সিরাজগঞ্জের চৌহালীতে পুলিশের মোটরসাইকেল থেকে লাফ দিয়ে পালাতে গিয়ে ঠান্ডু মিয়া (৪৫) নামে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। বুধবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে টাঙ্গাইল জেলার নাগরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে তিনি মারা যান।

 

এর আগে রাত ৮টার দিকে চৌহালী থানার বোয়ালিয়া বন্যা মোড় এলাকা থেকে ঠান্ডু মিয়াকে আটক করে পুলিশ। ঠান্ডু মিয়া টাঙ্গাইল জেলার নাগরপুর উপজেলার দেওযান সলিল গ্রামের হিরু মিয়ার ছেলে।  

সিরাজগঞ্জ অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এএসপি) আবু ইউসুফ জানান, খাস পুকুরিয়া ইউনিয়নের বোয়ালিয়া বন্যা বাজার থেকে ঠান্ডু মিয়াকে আটক করা হয়। পরে মোটরসাইকেলযোগে তাকে থানার আনার সময় সে মোটরসাইকেল থেকে লাফ দিয়ে পালানোর চেষ্টা করলে গুরুত্বর আহত হয়। আহতাবস্থায় তাকে চৌহালী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হওয়ায় সিরাজগঞ্জ সদর হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়।  

সিরাজগঞ্জে আনার পথে তার অবস্থার আরও অবনতি ঘটলে নাগরপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। স্থানীয়ভাবে ঠান্ডু মিয়ার বিরুদ্ধে চুরির অভিযোগ রয়েছে বলেও এই কর্মকর্তা জানিয়েছেন।  

এদিকে নিহতের শ্বশুড় রায়হান আলী ও শ্যালিকা আছমা বেগম জানান, ঠান্ডু মিয়ার নামে কোন মামলা ছিল না। তিনি কোন অপরাধীও ছিলেন না। তারপরও পুলিশ তাকে আটক করে নির্যাতন করেন। আর নির্যাতনের কারণেই তার মৃত্যু হয়েছে।  

নাগরপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ রামপদ জানান, হাসপাতালে আনার আগেই তিনি মারা যান। তার মাথায় গুরুতর আঘাত লাগার কারণে তার মৃত্যু হয়েছে।  

এ বিষয়ে জানার জন্য চৌহালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আকরাম হোসেনের মোবাইলে বার বার ফোর করা হলেও তিনি রিসিভ করেননি।  


বিডি প্রতিদিন/২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৭/হিমেল

আপনার মন্তব্য

up-arrow