Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ অক্টোবর, ২০১৭

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ অক্টোবর, ২০১৭
প্রকাশ : ১ মার্চ, ২০১৭ ১৮:৩২ অনলাইন ভার্সন
আপডেট :
'লুণ্ঠিত অস্ত্র উদ্ধারে দুঃসাহসিকতার পরিচয় দিয়েছে র‌্যাব'
এস.আজাদ, উখিয়া (কক্সবাজার)

'লুণ্ঠিত অস্ত্র উদ্ধারে দুঃসাহসিকতার পরিচয় দিয়েছে র‌্যাব'

কক্সবাজার জেলার টেকনাফ আনসার ক্যাম্প থেকে লুট হওয়া ৬টি অস্ত্র উখিয়ার টিভি র‌্যালি কেন্দ্রের পূর্বের পাশের ঘুমধুম তুমব্রু পশ্চিমকূল গহীন পাহাড়ী এলাকা থেকে উদ্ধার করেছে র‌্যাব-৭। বুধবার সকালে এসব অস্ত্র (এসএমজি এবং রাইফেল) উদ্ধার করা হয়।

এর আগে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় উখিয়ার কুতুপালং এলাকার রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবির সংলগ্ন এলাকা থেকে অস্ত্র লুটের ঘটনার মূল হোতা নুরুল আলম গ্রেফতার করা হয়। সে মিয়ানমারের মংডু আকিয়াব উপজেলার বাসিন্দা। পরে তাকে নিয়েই র‌্যাব সদস্যরা অস্ত্র উদ্ধার অভিযানে চালায় র‌্যাব-৭।

বুধবার দুপুরে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল ঘটনাস্থলে প্রেস ব্রিফিংকালে বলেন, ২০১৬ সালের ১২ মে টেকনাফের নয়াপাড়া শরণার্থী ক্যাম্পের নিরাপত্তায় নিয়োজিত সশস্ত্র আনসার ব্যারেকে একদল রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীর হামলায় আনসারের পিসি আবুল হোছন নিহত হয়। এ সময় সন্ত্রাসীরা আনসারের ১১টি অস্ত্র ও ৬৭০ রাউন্ড গোলাবারুদ লুটপাট করে নিয়ে যায়।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, উদ্ধারকৃত ৬টি (এসএমজি এবং রাইফেল) অস্ত্র আনসার ক্যাম্প থেকে লুণ্ঠিত অস্ত্র বলে সনাক্ত করা হয়েছে। এর আগে ১০ জানুয়ারি তুমব্রু গহীণ অরণ্য থেকে র‌্যাব-৭ এর সদস্যরা লুণ্ঠিত অস্ত্রের মধ্য থেকে ১টি এসএমজি, ৪টি চাইনিজ রাইফেলসহ ৫টি অস্ত্র ও ১৮৯ রাউন্ড গোলাবারুদ উদ্ধার করেছিল। আনসার ক্যাম্পের লুণ্ঠিত সমস্ত অস্ত্র ও গোলাবারুদ উদ্ধার হওয়ায় তিনি অস্ত্র উদ্ধার অভিযান সমাপ্ত ঘোষণা করেন এবং র‌্যাবের এমন দুঃসাহসিক অভিযানের প্রশংসা করেন।

রোহিঙ্গারা এদেশের জন্য হুমকি কি না সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবের মন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, রোহিঙ্গাদের মানবিক দৃষ্টিকোণ থেকে আমাদের সরকার এদেশে আশ্রয় দিয়েছে।

সেদেশের পরিবেশ স্বাভাবিক হলে তাদেরকে অবশ্যই ফেরত পাঠানো হবে।

ঠেঙ্গাচরের বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, আমাদের প্রধানমন্ত্রী রোহিঙ্গাদের ঠেঙ্গাচরে নিয়ে যাওয়ার যে চিন্তা ভাবনা করছেন তাও একটি মহৎ উদ্যোগ। বসবাসের উপযুক্ত পরিবেশ সৃষ্টি করে তাদেরকে সেখানে নিয়ে যাওয়া হবে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন র‌্যাবের মহাপরিচালক বেনজির আহমদ ও আনসার ভিডিপির মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মো. মিজানুর রহমান খান, কক্সবাজার পুলিশ সুপার ড. একেএম ইকবাল হোসেন, ৩৪ বিজিবি’র অধিনায়ক লে. কর্নেল ইমরান উল্লাহ সরকার, নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এস.এম সরওয়ার কামাল, উখিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাঈন উদ্দিন। প্রেস ব্রিফিং শেষে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী দুপুর ৩টার সময় হেলিকপ্টার যুগে ঢাকা উদ্দেশ্যে রওনা হন।


বিডি-প্রতিদিন/০১ মার্চ, ২০১৭/মাহবুব

 

আপনার মন্তব্য

up-arrow