Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শুক্রবার, ২৪ নভেম্বর, ২০১৭

ঢাকা, শুক্রবার, ২৪ নভেম্বর, ২০১৭
প্রকাশ : ১০ মার্চ, ২০১৭ ২০:০৬ অনলাইন ভার্সন
আপডেট : ১০ মার্চ, ২০১৭ ২০:১৮
'সরকার অশান্ত পাহাড়কে শান্ত করতে চুক্তি করেছিল'
রাঙামাটি প্রতিনিধি
'সরকার অশান্ত পাহাড়কে শান্ত করতে চুক্তি করেছিল'

বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার মো. ফজলে রাব্বী মিয়া বলেছেন, "প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকার ক্ষমতায় আসার পর অশান্ত পাহাড়কে শান্ত করতে শান্তি চুক্তি করেছিল। " শুক্রবার রাঙামাটি সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে আয়োজিত ২ দিন ব্যাপী সূবর্ণ জয়ন্তী উৎসবের উদ্বোধনকালে তিনি এ মন্তব্য করেন।

 

তিনি বলেন, "পার্বত্যাঞ্চল একটি সম্প্রীতির দেশ। কারণ এ অঞ্চলে বিভিন্ন ভাষাভাষির জাতিগোষ্ঠী বসবাস। তবে তখন এ অঞ্চলের মানুষ উদ্বেগ উৎকন্ঠা বসবাস করতো। কারণ তখন পাহাড়ে শান্তি ছিলনা। তাই ১৯৯৭সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারের পক্ষে তৎকালিন শান্তিবাহিনীর বর্তমানে (জনসংহতি সমিতির) নেতা সঙ্গে শান্তি চুক্তি করেছিল। এ শান্তি চুক্তি একদিনে প্রতিষ্ঠা হয়নি। তার জন্য ১৯৯৬ সালে তৎকালিন শান্তিবাহিনীর সঙ্গে বেশ কয়েকবার বৈঠকও করতে হয়েছিল। তাই পার্বত্যাঞ্চলে শান্তি ধরে রাখতে সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে থাকতে হবে। "

বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার মো. ফজলে রাব্বী মিয়া আরও বলেন, "সরকারের কারণে পার্বত্যাঞ্চলে উন্নয়নের জোয়ারে বাসছে।

সরকার এ অঞ্চলের শিক্ষার্থীদের জন্য উচ্চ শিক্ষার সুযোগ করে দিয়েছে। বিশেষ করে পার্বত্যাঞ্চলের মেয়েরা যেতে শিক্ষার আলো থেকে বঞ্চিত না হয় সে বিষয়ে সরকার বিশেষ নজর দিয়েছে।

তিনি বলেন, "সরকার ঘোষণা দিয়েছেন প্রতিটি উপজেলায় একটি বিদ্যালয় ও একটি কলেজ জাতীয়করণ করা হবে। তার মধ্যে পার্বত্যাঞ্চলও রয়েছে। এ ছাড়া তিনি জঙ্গীবাদ ও সন্ত্রাসীদের বিশষে সবাইকে সচেতন হতে হবে। "

রাঙামাটি জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মানজারুল মান্নানের সভাপতিত্বে উৎসবের উপস্থিত ছিলেন, সংসদ সদস্য ঊষাতন তালুকদার, সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ সদস্য ফিরোজা বেগম চিনু, সাবেক প্রতিমন্ত্রী দীপংকর দালুকদার, পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের ভাইস চেয়ারম্যান তরুণ কান্তি ঘোষ, রাঙামাটি জোন কমান্ডার লে.কণেল রেদুয়ান, পুলিশ সুপার সাঈদ তারিকুল হাসান প্রমুখ।

 

বিডি-প্রতিদিন/ ১০ মার্চ, ২০১৭/ আব্দুল্লাহ সিফাত-১৪

আপনার মন্তব্য

এই পাতার আরো খবর
up-arrow