Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৪ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৪ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : ১৩ মার্চ, ২০১৭ ১৮:৪২ অনলাইন ভার্সন
আপডেট :
স্যাটেলাইট যুক্ত কচ্ছপটি উদ্ধার
শেখ আহসানুল করিম, বাগেরহাট:
স্যাটেলাইট যুক্ত কচ্ছপটি উদ্ধার

সুন্দরবনের করমজল বন্যপ্রাণি প্রজনন কেন্দ্রে থেকে বিশ্বের ‘বিলুপ্তপ্রায়’ প্রজাতির কচ্ছপ বাটাগুর বাসকা’র জীবনাচারণ জানতে দুটি কচ্ছপ'র পিঠে স্যাটেলাইট  ট্রান্সমিটার যুক্ত করে ছেড়ে দেয়া দুটি কচ্ছপের একটি অল্পের জন্য বেঁচে গেছে। জালে ধরা পড়ার পর জেলে তা বাজারে বিক্রি করতে নিয়ে এলে পুলিশ উদ্ধার করায় মানুষের খাদ্য হিসেবে পেটে যাওয়া থেকে এ যাত্রায় রক্ষা পেয়েছে কচ্ছপটি।

বিশ্বের ‘বিলুপ্তপ্রায়’ প্রজাতির বাটাগুর বাসকা’ জীবনাচারণ জানতে দুটি কচ্ছপ পিঠে স্যাটালাইট ট্রান্সমিটার লাগিয়ে গত ৬ ফেব্রুয়ারি বঙ্গোপসাগরের মোহনায় ছেড়ে দেয়া হয়। সোমবার সকালে ওই দুটি কচ্ছপের একটি সাতক্ষীরার তালা উপজেলার টিআরএম বিলে মাছ ধরার সময় এক জেলের জালে ধরা পড়ে। স্যাটালাইট যন্ত্রযুক্ত ১২ কেজি ওজনের কচ্ছপটি তালা উপজেলার দোহার গ্রামের জেলে শেখ ওহাব উদ্দিন স্থানীয় শ্রীমন্তকাটি নতুন বাজার মাছের আড়তে বিক্রর জন্য নিয়ে আসে। এখবর ছড়িয়ে পড়লে পুলিশ কচ্ছপটি উদ্ধার করে।
 
সুন্দরবনের করমজল বন্যপ্রাণি প্রজনন কেন্দ্রের কচ্ছপ ও সংরক্ষন প্রকল্প মাঠ পর্যায়ে দেখভালের ম্যানেজার আব্দুর রব বলেন, গত ৬ ফেব্রুয়ারি সুন্দরবনের বঙ্গোপসাগরের মোহনার আদাচাই এলাকার সাগরের পানিতে ছেড়ে দেয়া হয় এই কচ্ছপটি। আমাদের প্রকল্পের কর্মকর্তাদের সাথে পুলিশের কথা হয়েছে। সেখান থেকে কচ্ছপটি নিয়ে এসে করমজল বন্যপ্রাণি প্রজনন কেন্দ্রে রাখা হবে। পরবর্তীতে প্রকল্পের কর্মকর্তারা সিন্ধান্ত নিবে এই কচ্ছপটির আবারো পানিতে ছাড়া হবে কী না।

সাতক্ষিরা জেলার তালা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. হাসান হাফিজুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, উদ্ধার হওয়া কচ্ছপটি নিয়ে যেতে সুন্দরবন বিভাগের করমজল বণ্যপ্রাণি প্রজনন কেন্দ্রের কচ্ছপ প্রকল্পের লোকজনকে খবর দেয়া হয়েছে। নিতে আসলে তাদের কাছে কচ্ছপটি হস্তানান্তর করা হবে।
বাগেরহাটের পূর্ব সুন্দরবন বিভাগের ডিএফও মো.সাইদুল ইসলাম বলেন, বনবিভাগ, আমেরিকার টারটেল সারভাইভাল এলায়েন্স, অস্ট্রিয়ার ভিয়েনা জু ও প্রকৃতি জীবন ফাউন্ডেশনের অথর্আয়ানে সুন্দরবনের করমজল বন্যপ্রাণি প্রজনন কেন্দ্রের কুমির ও হরিণের পাশাপাশি ২০১৪ সালে গড়ে তোলা হয় বাটাগুর বাসকা’র কচ্ছপ প্রজনন কেন্দ্র। বিশ্বে ‘বিলুপ্তপ্রায়’ প্রজাতির তালিকায় থাকা বাটাগুর বাসকা কচ্ছপ করমজলে প্রজননের আগে বিশ্বের মধ্যে শুধু মাত্র সুন্দরবনসহ বাংলাদেশ ও ভারতে ছিলো মাত্র ১শ' টির মতো। মাত্র ৩ বছরে সুন্দরবনের করমজলে প্রজননের মাধ্যমে এর সংখ্যা এসে দাড়ায় ১২৭টিতে। বর্তমানে করমজল কচ্ছপ প্রজনন কেন্দ্রে বর্তমানে ১শ ১৭ কিশোর-কিশোরী ও ১০টি বড় বাটাগুর বাসক প্রজাতির কচ্ছপ রয়েছে। এর মধ্যে ৪টি বড় পুরুষ ও ৪টি নারী কচ্ছপ রয়েছে।  

বিডি প্রতিদিন/এ মজুমদার

আপনার মন্তব্য

up-arrow