Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বুধবার, ২৩ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, বুধবার, ২৩ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : ১৩ মার্চ, ২০১৭ ১৮:৫১ অনলাইন ভার্সন
আপডেট :
নোয়াখালীতে প্রধান শিক্ষককে পিটিয়ে আহত করল আ.লীগ কর্মীরা
নোয়াখালী প্রতিনিধি:
নোয়াখালীতে প্রধান শিক্ষককে পিটিয়ে আহত করল আ.লীগ কর্মীরা

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলায় এক মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষককে বেধড়ক পিটিয়ে আহত করল আ.লীগ কর্মীরা। প্রতিবাদে শিক্ষক শিক্ষার্থীরা ক্লাস বর্জন শুরু করেছে।

হামলাকারীরা এ সময় ব্যাপক ভাংচুর এবং স্কুলের প্রয়োজনীয় কাগজপত্র ছিনিয়ে নিয়ে যায়।

সোমবার সকাল ১১ টায় এ ঘটনা ঘটে।

জানাগেছে, উপজেলার শিবপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচনের মনোনয়ন পত্র সংগ্রহ ও জমা দানের শেষ দিন ছিল সোমবার বিকেল ৪ টা পর্যন্ত। সকাল ১১ টায় স্থানীয় আ.লীগ নেতা মামুন, পলাশ ও আমজাদের নেতৃত্বে ২০/২৫ জন আ.লীগ কর্মী শিবপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক গোপাল চন্দ্র দাসের কক্ষে প্রবেশ করে। এসময় নির্বাচনের মনোনয়ন বিক্রির বিষয় তাদের কেন অবহিত করা হলো না এ অভিযোগে তাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ শুরু করে এবং ভাংচুর শুরু করে। ভাংচুরের গ্লাস ছুড়ে মারে প্রধান শিক্ষকের গায়ে। প্রধান শিক্ষক প্রতিবাদ করলে স্কুলে রক্ষিত ব্যাট দিয়ে তাকে বেদড়ক পিটুনি দেয় আ.লীগ কর্মীরা। তারা স্কুলের নির্বাচনের দাখিল করা মনোনয়নপত্র, ভোটার তালিকা সহ বেশ কিছু কাগজপত্র ছিনিয়ে নেয়। পরে তারা আবারো পুনরায় স্কুলে হামলা চালানোর চেষ্টা করলে এলাকাবাসী বাধা দেয়। এসময় ব্যাপক ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া হয়। এ ঘটনার প্রতবাদে ও বিচারের দাবিতে শিক্ষক ও শিক্ষর্থীরা ক্লাস বর্জন শুরু করে। বেগমগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

শিক্ষক গোপাল চন্দ্র দাস জানান, স্কুলের পরিচালনা কমিটির নির্বাচনের সকল কার্যক্রম নিয়ম অনুযায়ী করা হয়েছে। নির্বাচনের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হলেও তাদের কেন ব্যক্তিগত ভাবে জানানো হলো না এ অভিযোগে  তারা হামলা চালায়। এ ঘটনায় পুলিশ কাউকে গ্রেফতার করেনি।

বিডি প্রতিদিন/ সালাহ উদ্দীন

আপনার মন্তব্য

up-arrow