Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ১৪ মার্চ, ২০১৭ ২৩:০৩
আপডেট : ১৪ মার্চ, ২০১৭ ২৩:০৭

মুন্সীগঞ্জে কোদাল হাতে নারী ডিসির খাল খনন কর্মসূচি

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি:

মুন্সীগঞ্জে কোদাল হাতে নারী ডিসির খাল খনন কর্মসূচি

মুন্সীগঞ্জ শহরের প্রাণ কাটাখালী খাল খনন শুরু হয়েছে। মঙ্গলবার বিশাল শোভাযাত্রা করে সর্বস্তরের মানুষকে নিয়ে এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক সায়লা ফারজানা। শহরের জেলাখানা সড়ক ও সার্কিট হাউস থেকে প্রায় এক কিলোমিটার দীর্ঘ এই খাল ময়লার ভাগাড়ে পরিনত হয়েছিল। এই সুযোগে অনেক বেদখখ করেছে খালটি। 

এছাড়া খালে প্রচুর ময়লা থাকায় শহরে সৃষ্টি হয় জলাবদ্ধতা। এই পুরো খাল উদ্ধার এবং খালটি খনন করে পানি প্রবাহ চালু করে খালের প্রাণ ফিরিয়ে আনার পাশাশি সৌন্দর্য বর্ধনের পরিকল্পনা গ্রহন করা হয়েছে। সেই লক্ষ্যে ১০ হাজার কিউবিক মিটার মাটি কাটা এবং খালের পাড় বাধাই করে সেখানে পর্যটকদের বসার স্থান করা হবে বলে জানা গেছে। 

“সবুজে সাজাই মুন্সীগঞ্জ” নামে কর্মসূচির মাধ্যমে সভ্যতার জনপদ মুন্সীগঞ্জকে ড্রইং রুমের মত সাজানোর পরিকল্পনার কথা জানান জেলা প্রশাসক। এই খাল কাটা কর্মসূচির শুরুর আগে শহরে সর্বস্তরের মানুষের অংশগ্রহণে সর্বকালের বড় শোভাযাত্র বের হয়। পরে শোভাযাত্রাটি সার্কিট হাইসের সামনে গিয়ে শেষ হয়। সেখানে ফলক উন্মোচন করেন জেলা প্রশাসক। পরে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক ছাড়াও বক্তব্য রাখেন পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জায়েদুল আলম পিপিএম, সরকারি হরগঙ্গা কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মীর মাহফুজুল হক, জেলা মুক্তিযোদ্ধা আনিস-উজ-জামান, দৈনিক সভ্যতার আলো সম্পাদক মীর নাসিরউদ্দিন উজ্জ্বল, মুন্সীগঞ্জ মহিলা সংস্থার সভাপতি ফরিদা আহম্মেদ রুনী, সাংবাদিক সেতু ইসলাম ও সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সামসুল কবির মাস্টার প্রমুখ। অনুষ্ঠানটির সঞ্চালনা করেন সম্মিলিত সাংস্কৃতি জোটের সভাপতি মতিউল ইসলাম হিরু। 

এসময় জেলা প্রশাসক সায়লা ফারজানা জানান, মুন্সীগঞ্জ জেলাকে একটি পরিবেশ বান্ধব জেলা হিসাবে গড়ে তুলতে হলে পরিবেশের উন্নয়ন, শহর পরিষ্কার পরিচ্ছন্নকরণ, সবুজায়ন ও অবৈধ দখলকৃত খাল পুনরুদ্ধার করা অত্যন্ত জরুরী। তিনি আরও বলেন, জেলার সার্কিট হাউজ সংলগ্ন মুন্সীগঞ্জ জেলখানা রোড হতে কাটাখালী পর্যন্ত প্রবাহমান ঐতিহ্যবাহী খালটি ভরাট হয়ে বর্তমানে নর্দমা ও আবর্জনার স্তুপে পরিণত  হয়েছে। বর্তমানে খালটি জলাবদ্ধতার কারণে সকল মৌসুমে মশা-মাছির উপদ্রবে আশেপাশের এলাকা পরিবেশ দূষণসহ বসবাসের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। তাই এলাকাবাসীর দুর্ভোগের বিষয়টি বিবেচনা করে এবং পরিবেশবান্ধব মুন্সীগঞ্জ জেলা বিনির্মাণের লক্ষ্যে প্রাথমিক কর্মসূচির অংশ হিসেবে খালটি পুনরুদ্ধারের উদ্যোগ গ্রহণ করা যেতে পারে।

পুলিশ সুপার জায়েদুল আলম জানান, ‘সবুজে সাজাই মুন্সীগঞ্জ’ জেলা প্রশাসকের এই মহোতি উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছে জেলার সর্বস্থরের মানুষ। এর সাথে জেলা পুলিশ একাত্বতা প্রকাশ করে আগামি রোববার দিনব্যাপি এই খালে মাটি কেটে সরাসরি অংশগ্রহণ করবে।

মুক্তিযোদ্ধা মতিউল ইসলাম জানান, সার্কিট হাউজ সংলগ্ন মুন্সীগঞ্জ জেলখানা রোড হতে কাটাখালী নদী পর্যন্ত খালটি ঐতিহ্যবাহী খালটি পুনরুদ্ধারও খনন সম্পন্ন হলে এলাকার জনগণকে একটি সুস্থ্য ও সুন্দর পরিবেশ সৃষ্টি হবে। জেলা প্রশাসন ছাড়াও এই কর্মসূচিতে মুক্তিযোদ্ধা, রাজনীতিবিদ, মুন্সীগঞ্জ পৌরসভা, জেলা পরিষদ, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, এলজিইডিসহ সরকারি অন্যান্য দপ্তর, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি, ব্যবসায়ী, আইনজীবী, সাংবাদিক, রোভার স্কাউটস এবং বিভিন্ন বেসরকারি প্রতিষ্ঠানসহ সর্বস্তরের মানুষ এই মহতি আয়োজনে অংশ নেয়।

জেলা প্রশাসক বলেন, ‘সবুজে সাজাই মুন্সীগঞ্জ’ কর্মসূচির মাধ্যমে পর্যায়ক্রমে জেলাটিকে সুন্দরভাবে সাজানো হবে। তিনি বলেন, খালকাটা কর্মসূচির পরই শুরু করা হবে আরেকটি কর্মসূচি। শহরের উপকণ্ঠ মুক্তারপুর সেতু থেকে মুন্সীগঞ্জ শহর পর্যান্ত পায়ে হাটা কর্মসূচি। সকলে মিলে শহরে প্রবেশের এই রাস্তা এবং আশপাশ পরিস্কার করা হবে। এরপর সবসময় রাস্তাটি পরিস্কার পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য সংশ্লিষ্ট পৌরসভা, ইউনিয়ন পরিষদ, বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ও বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গকে দায়িত্ব অর্পন করা হবে। পর্যায়ক্রমে সভ্যতার জনপদ মুন্সীগঞ্জকে সুন্দর জনপদে পরিণত করতে নানা পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।


বিডি প্রতিদিন/১৪ মার্চ ২০১৭/হিমেল


আপনার মন্তব্য