Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : ১৬ মার্চ, ২০১৭ ১৯:১২ অনলাইন ভার্সন
আপডেট :
সাতক্ষীরা রেঞ্জে বাঘের সংখ্যা জানা যাবে আগস্টে
শেখ আহসানুল করিম, বাগেরহাট:
সাতক্ষীরা রেঞ্জে বাঘের সংখ্যা জানা যাবে আগস্টে
ফাইল ছবি

সুন্দরবনের সাতক্ষীরা রেঞ্জে ক্যামেরা ট্রাপিং পদ্ধতিতে বাঘ গণনার কাজ বুধবার শেষ হয়েছে। গত বছরের ১ ডিসেম্বর সাতক্ষীরা রেঞ্জে থেকে এ পদ্ধতিতে সুন্দরবনে বাঘ পরিবীক্ষণ (গণনা) শুরু হয়।

সুন্দরবনের শুধুমাত্র সাতক্ষীরা রেঞ্জের ২০০ পয়েন্টে গাছ বা খুঁটির সঙ্গে ৪০০টি ক্যামেরা বসিয়ে সুন্দরবনের প্রকৃতির পাহারাদার রয়েল বেঙ্গল টাইগার গণনার কাজ করা হয়। বন্যপ্রাণি ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের কর্মকর্তা মো. মদিনুল আহসান এতথ্য নিশ্চিত করেছেন।

বন্যপ্রাণি ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের কর্মকর্তা মো. মদিনুল আহসান জানান, প্রথম দফায় সুন্দরবনের ২৬ শতাংশ এলাকায় ক্যামেরা ট্রাপিং পদ্ধতিতে বাঘ শুমারি করা হয়েছিল। এরপর দ্বিতীয় দফায় গত বছরের ১ ডিসেম্বর থেকে সাতক্ষীরা রেঞ্জের দক্ষিণ দিকে থেকে বনের ৫০ শতাংশ এলাকায় ক্যামেরা স্থাপণ করে এবারের গণনা কার্যক্রম চালানো হয়। এর আগে যেসব এলাকায় বাঘের উপস্থিতি বেশি এমন এলাকাগুলো বেছে নেওয়া হয়েছিল। ইউএসএইডের অর্থায়নে বাঘ প্রকল্পের অধীনে ডিসেম্বর থেকে ১৫ মার্চ পর্যন্ত সাতক্ষীরা রেঞ্জে বাঘ গণনা করা হয়।

এ বছর শুধু সাতক্ষীরা রেঞ্জে বাঘ গণনার কাজ করা হবে জানিয়ে মদিনুল আহসান আরও জানান, ৮ সদস্যবিশিষ্ট ৬টি টিমের ৪৫ জন সদস্য সদস্য বাঘ গণনার কাজ করেছে। ক্যামেরা ট্রাপিংয়ের পাশাপাশি খাল সার্ভের মাধ্যমেও বাঘ গণনা করা হয়েছে। এখন তা পর্যালোচনা করে প্রতিবেদন তৈরি করা হবে। এই কাজে সহযোগিতা করবে বন্যপ্রাণী বিষয়ক বেসরকারি সংস্থা ওয়াইল্ড টিম। আগস্ট মাসে সাতক্ষীরা রেঞ্জের বাঘের প্রকৃত সংখ্যার প্রতিবেদন পাওয়া যাবে বলেও জানান এ বন কর্মকর্তা।

সুন্দরবন বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, এর আগে ২০১৩ সালের নভেম্বরে সুন্দরবনে ক্যামেরা ট্রাপিং পদ্ধতিতে বাঘ গণনা শুরু হয়েছিল। সুন্দরবনের বিভিন্ন স্থানে গাছ বা খুঁটির সঙ্গে ৯০টি ক্যামেরা বসিয়ে ওই গণনার কাজ করেন প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ৩০ জন কর্মী। ২০১৫ সালের মার্চে শেষ হয় গণনার কাজ। ওই শুমারি অনুযায়ী বাঘের সংখ্যা দাঁড়ায় ১০৬টিতে।

বিডি প্রতিদিন/এ মজুমদার

আপনার মন্তব্য

up-arrow