Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ অক্টোবর, ২০১৭

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ অক্টোবর, ২০১৭
প্রকাশ : ১৯ জুন, ২০১৭ ২১:২৪ অনলাইন ভার্সন
আপডেট : ১৯ জুন, ২০১৭ ২১:২৬
যৌতুকের জন্য পাঁচ মাসের অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যা
নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী:
যৌতুকের জন্য পাঁচ মাসের অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যা

রাজশাহীর তানোরে যৌতুকের জন্য পাঁচ মাসের অন্তঃসত্ত্বা এক গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ওই গৃহবধূর বাবা বাদী হয়ে আজ বিকেলে থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

পুলিশ ওই গৃহবধূর শাশুড়িসহ তিনজনকে গ্রেফতার করেছে। নিহত গৃহবধূ রোকেয়া বেগম বিউটি (১৮) উপজেলার পাঁচন্দর ইউনিয়নের বনকেশর গ্রামের মেহেদি হাসানের স্ত্রী। ওই গৃহবধূর বাবার বাড়ি একই ইউনিয়নের চুনিয়াপাড়া গ্রামে। প্রায় ৭ মাস আগে মেহেদির সঙ্গে বিয়ে হয়েছিল তার।

তানোর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেজাউল করিম জানান, আজ দুপুরে বিউটির শ্বশুরবাড়ির একটি ঘরে তার ঝুলন্ত লাশ পাওয়া যায়। শ্বশুরবাড়ির লোকজন বিষয়টি আত্মহত্যা বলে প্রচার করেন। তবে তার বাবা রবিউল ইসলাম অভিযোগ করেন, বিউটিকে পিটিয়ে ও শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে। এদিকে খবর পেয়ে দুপুরেই লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজের মর্গে পাঠানো হয়। পরে বিকেলে গৃহবধূর বাবা বাদী হয়ে থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন।

মামলায় বিউটির স্বামী মেহেদি, শ্বশুর মো. শামসুদ্দিন, শাশুড়ি মজিদা বেগম এবং বিউটির ভাসুর ও তার স্ত্রীকে আসামি করা হয়েছে। আসামিরা যৌতুকের জন্য অন্তঃসত্ত্বা বিউটিকে হত্যা করেছেন বলে মামলার এজাহারে দাবি করা হয়েছে। তারা আগে থেকেই বিউটিকে নির্যাতন করতেন বলেও এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে।

ওসি রেজাউল করিম জানান, মামলার পর নিহত বিউটির ভাসুর ও তার স্ত্রী এবং শাশুড়িকে গ্রেফতার করে থানায় নেওয়া হয়েছে। তবে তার স্বামী ও শ্বশুর পলাতক রয়েছেন। তাদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

বিডি প্রতিদিন/এ মজুমদার

 

আপনার মন্তব্য

up-arrow