Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ২৫ নভেম্বর, ২০১৭

ঢাকা, শনিবার, ২৫ নভেম্বর, ২০১৭
প্রকাশ : ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ১৮:৪৯ অনলাইন ভার্সন
কুয়াকাটা সৈকতে 'ভবনের ভাঙ্গা অংশ' পর্যটকদের মরণ ফাঁদ
কলাপাড়া(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি:
কুয়াকাটা সৈকতে 'ভবনের ভাঙ্গা অংশ' পর্যটকদের মরণ ফাঁদ

পর্যটন কেন্দ্র কুয়াকাটা সৈকতের জিরো পয়েন্টের ভবনের ভগ্নাংশ ও বড় বড় স্লিপারের ভাঙ্গা অংশ এখন পর্যটকদের জন্য মরণ ফাঁদে পরিণত হয়েছে।  

জোয়ারের সময় সৈকতে পর্যটকরা প্রতিদিনই গোসল করতে নেমে কোন না কোন আঘাতপ্রাপ্ত হচ্ছেন।

প্রায় এক শ’ মিটার এলাকাজুড়ে ওইসব বিপজ্জনক ভবনের ভাঙ্গা অংশ ছড়িয়ে ছিটিয়ে পড়ে রয়েছে। দীর্ঘ সাত বছরে এলজিইডি কর্তৃপক্ষ, বীচ ম্যানেজমেন্ট কমিটি কিংবা কুয়াকাটা পৌরসভা কর্তৃপক্ষ সৈকত থেকে অপসারণ করেনি। এর ফলে আগত পর্যটকসহ স্থানীয়রা ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ২০১০ সালে সৈকত লাঘোয়া এলজিইডির ডাকবাংলো সিডরে বিধ্বস্ত হলে ভবনটি নিলামে বিক্রি হয়। নিলাম ক্রেতা ভবনটি ভেঙ্গে নিয়ে যায়। কিন্তু অসংখ্য পিলারের গোড়ার অংশ সহ ফ্লোরের বড় বড় ভাঙ্গা অংশ বিচে পড়ে থাকে।

 

স্থানীয়রা ইতোপূর্বে নিজ উদ্যোগে ঝুকিপুর্ণ এরিয়ায় বাঁশ পুতে লাল কাপড় টানিয়ে দিয়েছিলেন। এখন তাও নেই। ফলে পর্যটকরা জোয়ারের সময় গোসল করতে নেমে প্রতিদিন কোন না কোনভা্ে আহত হচ্ছে।

কুয়াকাটা বিচ ম্যানেজমেন্ট কমিটির সদস্য ও কলাপাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবিএম সাদিকুর রহমান জানান, পর্যটকের সমস্যা নিরসনে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নেওয়া হবে।  

তবে কবে নাগাদ পর্যটকের আহতের শঙ্কা থেকে মুক্ত করতে ভবনের ভাঙ্গা অংশগুলো অপসারণ করা হবে তা নিয়ে নিশ্চিত করে কিছু জানাতে পারেননি তিনি।

বিডিপ্রতিদিন/ ইমরান জাহান/ ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৭

আপনার মন্তব্য

এই পাতার আরো খবর
up-arrow