Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮

প্রকাশ : ১৭ জানুয়ারি, ২০১৮ ১৮:৩৯ অনলাইন ভার্সন
গৌরনদীতে যুবলীগ-ছাত্রলীগের সংঘর্ষে নারীসহ আহত ১০, ককটেল উদ্ধার
নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল
গৌরনদীতে যুবলীগ-ছাত্রলীগের সংঘর্ষে নারীসহ আহত ১০, ককটেল উদ্ধার

বরিশালের গৌরনদী উপজেলার বড়দুলালী গ্রামে যুবলীগ ও ছাত্রলীগের মধ্যে সংঘর্ষে মহিলাসহ অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। চাঁদা দাবির ঘটনাকে কেন্দ্র করে বুধবার সকালে দফায় দফায় হামলা সংঘর্ষের সময় একটি ককটেল বিস্ফোরিত হয় বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

আহতদের মধ্যে গুরুতর অবস্থায় ২ জনকে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে একটি অবিস্ফোরিত ককটেল উদ্ধার করেছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সরকারি গৌরনদী কলেজ ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. রাসেল হাওলাদার স্থানীয় পালরদী নদী দিয়ে ড্রেজারে বালু উত্তোলন করে বালু ভরাটের ব্যবসা করে আসছিলো। সম্প্রতি বড়দুলালী গ্রামের জানে আলমের ডোবা ভরাটের কাজ নেয়। গত মঙ্গলবার রাসেল পালরদী নদীতে ড্রেজার দিয়ে ডোবা ভরাটের কাজ শুরু করেন। ভরাট কাজকে কেন্দ্র করে স্থানীয় যুবলীগ নেতা সোহরাব বেপারী ও সরকারি গৌরনদী কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি মামুন প্যাদা সহ কতিপয় যুবলীগ নেতাকর্মীর সঙ্গে রাসেল প্যাদার বাদানুবাদ হয়।

এর জের ধরে বুধবার সকালে ঘণ্টাব্যাপী ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া, ইট-পাটকেল নিক্ষেপ ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ সময় বালু উত্তোলন মেশিনের ১৫টি পাইপ কেটে ফেলা হয়। হামলা ও সংঘর্ষে যুবলীগ কর্মী সোহরাব বেপারী, মামুন প্যাদা, তার চাচা শ্বশুর সোহাগ বেপারী, সমর্থক লিটন হাওলাদার, সাইদুল বেপারী, ফিরোজ সরদার, স্থানীয় ছাত্রলীগ নেতা রাসেল হাওলাদার, তার মা হাসিনা বেগম, সমর্থক খলিল খন্দকার, আরিফ হোসেন সহ উভয় পক্ষের ১০ জন আহত হয়। গুরুতর আহতাবস্থায় সোহাগ বেপারীকে বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ও সোহরাব বেপারীকে গৌরনদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

সরকারি গৌরনদী কলেজ ছাত্রলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক রাসেল হাওলাদার অভিযোগ করেন, বার্থী ইউনিয়নের বড়দুলালী গ্রামে তিনি বালু ভরাটের কাজ শুরু করলে যুবলীগের সদস্য মামুন প্যাদা ও তার সহযোগী সোহরাব বেপারী ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করেন। চাঁদা দিতে অস্বীকার করলে তারা তার উপর হামলা করে।

চাঁদা দাবির অভিযোগ অস্বীকার করে যুবলীগ কর্মী সোহরাব বেপারী বলেন, তিনি ও রাসেল যৌথভাবে বালু ভরাটের ব্যবসা করছেন। ব্যবসার অংশ দাবি নিয়ে ঝগড়াঝাটি হয়।

গৌরনদী মডেল থানার ওসি মো. মনিরুল ইসলাম বলেন, খবর পেয়ে তিনি ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেন। ঘটনাস্থল থেকে পরিত্যক্ত একটি অবিস্ফোরিত ককটেল উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেবে পুলিশ।

বিডি-প্রতিদিন/ সালাহ উদ্দীন

আপনার মন্তব্য

এই পাতার আরো খবর
up-arrow