Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ১৬:১৮ অনলাইন ভার্সন
রাস্তা বন্ধ; বিপাকে ৩০টি পরিবার
দিনাজপুর প্রতিনিধি:
রাস্তা বন্ধ; বিপাকে ৩০টি পরিবার

দিনাজপুরের বিরলের মোলানপুকুর গুচ্ছগ্রামের একমাত্র চলাচলের রাস্তাটি বন্ধ করে দেয়ায় ৩০টি পরিবারের মানুষ বিপাকে পড়েছেন।

বিষয়টি স্থানীয় প্রশাসনের কাছে ইউপি চেয়ারম্যান তুলে ধরার পরও এখন কোনও সমাধান হয়নি। 

জানা যায়, বিরল উপজেলার আজিমপুর ইউনিয়নের মোলানপুকুর পাড়ে সরকার কর্তৃক বিগত এক বছর পূর্বে ৩০টি অসহায় ভূমিহীন পরিবারকে আবাসনের ব্যবস্থা করে দেয়া হয়।

১৩ দিন পূর্বে গুচ্ছ গ্রামটির উন্নয়নকল্পে রংপুর বিভাগীয় কমিশনার কাজী আহম্মেদ হোসেন পরিদর্শন করেন। 

এরপর কয়েকদিন আগে এলাকার একটি মহলের উসকানিতে গুচ্ছ গ্রামের যাতায়াতের একমাত্র রাস্তাটি জনৈক কহিনুর বেওয়া নামের এক নারী তার লোকজন দিয়ে কেটে তুলে ফেলে বন্ধ করে দেয়। 

ওই নারীর বক্তব্য, তার জায়গার উপর দিয়ে রাস্তা করা হয়েছিল, তাই কেটে ফেলে দেয়া হয়েছে। 

এ ব্যাপারে আজিমপুর ইউপি চেয়ারম্যান নাজমুল হায়দার স্বপন জানান, গত ৩০ জানুয়ারি রংপুর বিভাগীয় কমিশনার স্যার আসার আগে আমি ৪০ দিনের কর্মসূচীর মাধ্যমে রাস্তাটি প্রসারিত করি। কিন্তু দুঃখজনক, জনৈক কহিনুর বেওয়া তার লোকজন দিয়ে রাস্তাটি তুলে ফেলেন। বর্তমানে গুচ্ছ গ্রামের লোকজন রাস্তার অভাবে চলাফেরা করতে পারছেন না। ওই গুচ্ছগ্রাম এলাকায় সবচেয়ে বড় ঈদগাঁ মাঠ রয়েছে। রাস্তাটি দ্রুত মেরামত করা না হলে গুচ্ছগ্রামবাসীর পাশাপাশী ঈদ জামাতের লোকজন সেখানে যেতে পারবেন না। আমি পয়ে হেঁটে যাতায়াতের ব্যবস্থা করার চেষ্টা করছি। যে কোন কিছুর বিনিময়ে ওই রাস্তাটি করে দিতে চাই। কিন্তু অজ্ঞাত কারণে ওই পক্ষ রাজী হয়না। আমি এমনও বলেছি ওই রাস্তার জন্য জায়গা দিলে তার তিনগুণ জমি দিব। কিন্তু তারা শোনেননা। এরপরেও চেষ্টা করে যাচ্ছি। 

বিডিপ্রতিদিন/ ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮/ ই জাহান

আপনার মন্তব্য

এই পাতার আরো খবর
up-arrow