Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ১৪:২৩ অনলাইন ভার্সন
রায়পুরে চিকিৎসক নেই ১০ স্বাস্থ্যকেন্দ্রে, মিলছে না সেবা
রায়পুর (লক্ষ্মীপুর) প্রতিনিধি :
রায়পুরে চিকিৎসক নেই ১০ স্বাস্থ্যকেন্দ্রে, মিলছে না সেবা

লক্ষ্মীপুরের রায়পুর উপজেলার ইউনিয়ন পর্যায়ে দুটি উপ-স্বাস্থ্যকেন্দ্র ও আটটি স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কল্যাণ কেন্দ্রে নেই পর্যাপ্ত চিকিৎসক। ফলে এসব কেন্দ্রে সেবা নিতে এসে ফিরে যাচ্ছেন রোগীরা। 

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, স্বাস্থ্যসেবা মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে সরকার প্রতিটি ইউনিয়নে স্বাস্থ্যকেন্দ্রের কার্যক্রম চালু করার উদ্যোগ নিয়েছে। অথচ পাঁচ-ছয় বছর ধরে স্বাস্থ্য কেন্দ্রগুলোর চিকিৎসকের পদগুলো শূন্য রয়েছে। এ কারণে উপজেলার ৫০ শয্যা বিশিষ্ট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রোগীদের চাপ দিন দিন বেড়েই চলেছে।

জানা গেছে, উপজেলার হায়দরগঞ্জ বাজার ও সাইচা উপ স্বাস্থ্য কেন্দ্রে একজন করে চিকিৎসকের পদ রয়েছে। কিন্তু পাঁচ বছর ধরে পদ দুটি শূন্য। ডাক্তার আসলেও কয়েকদিন থেকে তারা আবার বদলি হয়ে চলে যান। তাছাড়া চরপাতা, কেরোয়া, সোনাপুর, চরমোহনা, উত্তর চরবংশী, দক্ষিণ চরবংশী, উত্তর চর আবাবিল এবং রায়পুর ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কল্যাণ কেন্দ্রে একজন করে চিকিৎসকের পদ থাকলেও সেগুলো দীর্ঘদিন ধরে শূণ্য রয়েছে। অধিকাংশ পদগুলো পাঁচ-ছয় বছর ধরে খালি পড়ে আছে বলে জানা গেছে।

উত্তর চর আবাবিল ইউনিয়নের কেওড়াডগী গ্রামের ইউসুফ সওদাগর জানান, গত বৃহস্পতিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) তিনি পেট ব্যথায় আক্রান্ত হয়ে হায়দরগঞ্জ স্বাস্থ্য কেন্দ্রে যান। তিনি দুপুর পর্যন্ত অপেক্ষা করেও কাউকে না পেয়ে স্বাস্থ্য কেন্দ্র থেকে চলে আসেন। পরে গ্রামের হাতুড়ে চিকিৎসকদের দ্বারা চিকিৎসা সেবা নিয়েছেন। কিন্তু ঐ চিকিৎসায় তার পেট ব্যাথা কমেনি। এমন আরো অনেক অভিযোগ রয়েছে। পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রগুলোতে যে পরিমান সেবা পাওয়ার কথা ছিল তার ছিঁটেফোঁটাও মিলছে না রোগীদের। 

এ বিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রের কর্মকর্তা শাহরিয়ার শায়লা জাহান শিমু বলেন, দুটি উপ স্বাস্থ্য কেন্দ্র এবং আটটি স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কল্যাণ কেন্দ্রে চিকিৎসকের পদ শূন্য রয়েছে। প্রতি মাসেই বিষয়টি সিভিল সার্জনকে জানানো হয়। কিন্তু আজও ঐ সব শূন্য পদ পূরণের ব্যবস্থা করা হয়নি। যে কারণে চিকিৎসা সেবা ও সরকারের উদ্দেশ্য ব্যহত হচ্ছে।

 

বিডি প্রতিদিন/১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৮/হিমেল

আপনার মন্তব্য

এই পাতার আরো খবর
up-arrow