Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ১৭ মার্চ, ২০১৮ ১২:২৮ অনলাইন ভার্সন
ফেনীতে পুলিশের উপর হামলাকারী বন্দুকযুদ্ধে নিহত
ফেনী প্রতিনিধি:
ফেনীতে পুলিশের উপর হামলাকারী বন্দুকযুদ্ধে নিহত

ফেনীর ফুলগাজীর জিএম হাটে পুলিশের উপর হামলাকারী এমরান হোসেন সাইফুল (২৮) বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছে। শনিবার ভোর রাতে জিএমহাট ব্রিকস ফিল্ডের পাশে এই ঘটনা ঘটে। এসময় সাইফুলের সহযোগী কাজী এমদাদুল হক সোহেল (১৯) ও মোঃ ইউনুস (২০) গুলিবিদ্ধ হন। 

ফুলগাজী থানার অফিসার ইনচার্জ হুমায়ুন কবির জানান, এ ঘটনায় পুলিশের ৮ সদস্য আহত হয়েছে। এছাড়া ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ ১টি এলজি, ২টি কার্তুজ, ৬টি ছোরা ও ৪টি রামদা উদ্ধার করেছে। 

পুলিশ জানায়, শুক্রবার বিকালে জিএমহাটে পুলিশের উপর হামলার ঘটনায় আজ ভোরে হামলাকারীদের গ্রেফতার করতে গেলে সন্ত্রাসীরা পুলিশের উপর পুনরায় হামলা চালায়। পুলিশ আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি চালালে সাইফুল, সোহেল ও ইউনুস গুলিবিদ্ধ হন। পরে ফেনী সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সাইফুল মারা যায়। নিহত সাইফুল ছাগলনাইয়ার কাছারি বাজার এলাকার পাঠাননগর গ্রামের মোঃ কাজী হানিফের ছেলে। সে স্থানীয় যুবলীগের রাজনীতির সাথে জড়িত ছিল বলে জানা যায়। 

হামলায় আহত পুলিশ সদস্যরা হলেন, এসআই মোশারফ, এসআই রাশেদুল কবির, এসআই আয়িুবখান, এএসআই শফিকুর রহমান, কনস্টেবল প্রদীপ কুমার চাকমা, ফারুক মিয়া, আবুল কাশেম ও চন্দ্রিকা ত্রিপুরা। 

উল্লেখ্য, শুক্রবার বিকালে জিএমহাট ব্রিকস ফিল্ডের দক্ষিন পাশে সন্ত্রাসীদের হামলায় দুই পুলিশ সদস্য আহত হয়। গুরুত্বর আহত পুলিশ কন্সটেবল আবুল খায়েরকে প্রথমে ফুলগাজী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে ফেনী জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে তাকে চট্রগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। অপর আহত পুলিশের এসআই সেলিম উদ্দিনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। 

এস আই সেলিম উদ্দিন জানান, পাঠান নগরের চিহ্নিত সন্ত্রাসী সাইফুল ও সোহেলসহ কয়েকজন চাঁদাবাজ তাদের উপর অতর্কিত হামলা চালায়। স্থানীয়রা জানায়, সাইফুল ও তার সহযোগীরা দীর্ঘদিন ব্রিকস ফিল্ডটিতে চাঁদা দাবি করে আসছিল। এ ব্যাপারে ফুলগাজী থানায় অভিযোগ দেয়া হলে শুক্রবার বিকালে পুলিশ সেখানে গেলে সাইফুলের নেতৃত্বে সন্ত্রাসীরা পুলিশের উপর হামলা চালায়।


বিডি প্রতিদিন/১৭ মার্চ ২০১৮/হিমেল

আপনার মন্তব্য

এই পাতার আরো খবর
up-arrow