Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ২৩ এপ্রিল, ২০১৮ ১৬:১৭ অনলাইন ভার্সন
আপডেট : ২৩ এপ্রিল, ২০১৮ ১৯:০৬
যুবলীগ নেতার ভয়ে স্কুলে তালা দিয়ে পালালো শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা
মশিউর রহমান মাসুম, মোরেলগঞ্জ:
যুবলীগ নেতার ভয়ে স্কুলে তালা দিয়ে পালালো শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে যুবলীগ নেতার হামলা ও মারপিটের আশংকায় বিদ্যালয়ে তালা দিয়ে সকল শিক্ষক ও ছাত্র-ছাত্রী পালিয়ে গেছে। চিংড়াখালী ইউনিয়নের সিংজোড় চন্ডিপুর বহুমুখী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে সোমবার বেলা ১১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. কামরুজ্জামান, থানার ওসি(তদন্ত) মো. আলমগীর কবির ঘটনাস্থলে গিয়ে বেলা ১টার দিকে শিক্ষকদেরকে বিদ্যালয়ে ফিরিয়ে আনেন। তবে ছাত্রছাত্রীদেরকে আর ফিরিয়ে আনা যায়নি। 

জানা গেছে, রবিবার বিকেলে ওই বিদ্যালয়ের সহকারি প্রধান শিক্ষক মো. শাহজাহান সিরাজ, সহকারি শিক্ষক অনির্বান রায় ও দপ্তরী সাখাওয়াত হোসেনকে ডেকে নিয়ে মারপিট করেন ওয়ার্ড যুবলীগ সভাপতি রাসেল মোল্লা। ওই ঘটনার প্রতিবাদে আজ সোমবার সকল শিক্ষক ও ছাত্র-ছাত্রী বিদ্যালয় চত্বরে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন করেন। মানববন্ধন চলাকালে ওই যুবলীগ নেতা রাসেল তার সহযোগীদের নিয়ে আবারো চড়াও হন শিক্ষকদের ওপর। এসময় প্রধান শিক্ষক, ছাত্রছাত্রী ও অন্যান্য শিক্ষকরা বিদ্যালয়ে তালা দিয়ে যে যার মতো করে পালিয়ে যান।

বিদ্যালয়ের পরিচলনা পরিষদ নির্বাচনে মনোনয়নপত্র দাখিলকে কেন্দ্র করে যুবলীগ নেতা রাসেল ও শিক্ষকদের সাথে মতবিরোধের কারণে এ ঘটনা ঘটে বলে জানা গেছে। 

প্রধান শিক্ষক সরদার নুর উদ্দিন আহমেদ বলেন, বিদ্যালয়ের সামনেই যুবলীগ নেতার অফিসে ডেকে নিয়ে দু’জন শিক্ষক ও দপ্তরীকে মারপিট করে কয়েক ঘণ্টা আটক করে রাখে রাসেল। আজ আমরা ওই ঘটনার প্রতিবাদে শান্তিপূর্ণভাবে মানববন্ধন করছিলাম। এ সময় আবারো রাসেলের বাহিনী হামলার চেষ্টা করলে আমরা পালিয়ে যেতে বাধ্য হই। 

অভিভাবক ও শিক্ষকদের অভিযোগ, সিদ্দিক মোল্লার ছেলে রাসেল জোর করে বিদ্যালয়ের মাঠের এক প্রান্তে অফিস ঘর তুলেছে। সেখানে তার অপছন্দের লোকগুলোকে নিয়ে বেঁধে মারপিট করে। একই কায়দায় শিক্ষকদেরকে মারপিট করা হয়েছে। রাসেল একজন মাদক সেবী এবং একজন প্রভাবশালী মাদক ব্যবসায়ী বলেও স্থানীয়রা জানান। 

এ সম্পর্কে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বলেন, বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তার স্বার্থে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। ওই এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। মামলার প্রস্তুতি চলছে ও দোষীদের আটকের চেষ্টা চলছে। 

অভিযোগের বিষয়ে জানতে ওয়ার্ড যুবলীগ সভাপতি রাসেল মোল্লার মোবাইল নম্বরে যোগাযোগ করা হলে বন্ধ পাওয়া যায়।


বিডি-প্রতিদিন/২৩ এপ্রিল, ২০১৮/মাহবুব

আপনার মন্তব্য

এই পাতার আরো খবর
up-arrow