Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ২৭ এপ্রিল, ২০১৮ ০০:০৩ অনলাইন ভার্সন
আপডেট : ২৭ এপ্রিল, ২০১৮ ০৬:৪৭
সাতক্ষীরায় ধান কাটা নিয়ে বিরোধের জেরে যুবককে হত্যা
কলারোয়া (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি
সাতক্ষীরায় ধান কাটা নিয়ে বিরোধের জেরে যুবককে হত্যা
প্রতীকী ছবি

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় জমির ধান কাটা নিয়ে সৃষ্ট বসচার জের ধরে এক শ্রমিককে পিটিয়ে হত্যা করেছে অপর শ্রমিক। নিহত যুবক মেহেদী হাসান (২০) কলারোয়া উপজেলার খোর্দ্দ বাটরা গ্রামের কেরামত গাজীর ছেলে। 

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় খোর্দ্দ বাটরা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর থেকে ঘাতক একই এলাকার গফ্ফার গাজীর ছেলে জাহিদ পলাতক রয়েছে। 

নিহত মেহেদী হাসানের মা জানান, তাদের পরিবার খুব গরীব। শারীরিকভাবে তিনি নিজেও খুব অসুস্থ। এ জন্য ধান কাটার শ্রমিক হিসাবে কাজ করে উপার্জিত টাকা দিয়ে ছেলে আমার চিকিৎসা করাতে চেয়েছিল। বৃহস্পতিবার খুব সকালে সে ১৩ জনের একটি দলের সাথে ধান কাটতে যায়। কাজে খুব একটা দক্ষ না হওয়ার কারণে একই দলের শ্রমিক গফ্ফার গাজীর ছেলে জাহিদ তাকে একদফা মারপিট করে। পরবর্তীতে সন্ধ্যার দিকে জাহিদ আবারো মেহেদীকে লাঠি দিয়ে এলোপাতাড়ীভাবে মারধর করে। গুরুতর আহত মেহেদীকে স্থানীয় এক ডাক্তারের কাছে নিয়ে গেলে তিনি কলারোয়া হাসপাতালে নেওয়ার পরামর্শ দেন। সেখানে নিয়ে আসার সময় পথিমধ্যে তার মৃত্যু ঘটে।

কলারোয়া হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক জানান, ছেলেটিকে হাসপাতালে আনার পূর্বেই তার মৃত্যু হয়েছে। নিহতের মাথা, ঘাড়, বুক, পিঠ ও হাতে আঘাতের কারণে ফোলা চিহ্ন পাওয়া গেছে। 

খবর পেয়ে পুলিশ হাসপাতাল থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করে কলারোয়া থানায় নিয়ে গেছে। এ ঘটনার ব্যাপারে কলারোয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বিপ্লব কুমার নাথ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

 

বিডি প্রতিদিন/আব্দুল্লাহ সিফাত তাফসীর

আপনার মন্তব্য

এই পাতার আরো খবর
up-arrow