Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ১৩ জুন, ২০১৮ ২২:০৩ অনলাইন ভার্সন
দিনাজপুরে ভুল চিকিৎসায় প্রসূতির মৃত্যুর অভিযোগ
দিনাজপুর প্রতিনিধি:
দিনাজপুরে ভুল চিকিৎসায় প্রসূতির মৃত্যুর অভিযোগ

দিনাজপুরের একটি ক্লিনিকে ভুল চিকিৎসায় প্রসূতির মুত্যৃর অভিযোগ উঠেছে। ঘটনার পর পর আল মদিনা নার্সিং হোম নামে ওই ক্লিনিকের চিকিৎসক, নার্সসহ স্টাফরা ক্লিনিক বন্ধ করে পালিয়ে গেছেন। তবে সিজারিয়ান শিশুটি ভালো আছে বলে জানা গেছে।

ওই প্রসূতির মৃত্যুর সংবাদ পেয়ে রোগীর আত্মীয়-স্বজন ক্লিনিকের সামনে ভিড় করলে কর্তৃপক্ষ ভিতর থেকে ক্লিনিকে তালা মেরে পালিয়ে যায়। পরে ঘটনাস্থলে পুলিশ গিয়ে রোগীর আত্মীয়-স্বজনকে শান্ত করে। 

বুধবার সকাল ৯ টার দিকে হোসনে আরা বেগম (২৭) নামে ওই প্রসূতির মৃত্যু হয়। হোসনে আরা বেগম দিনাজপুরের চিরিরবন্দর উপজেলার সাইতারা ইউনিয়নের জগন্নাথপুর গ্রামের ইয়াকুব আলীর স্ত্রী। 

নিহত প্রসূতির ভাই নাজমুল হক তাক্ষণিকভাবে সাংবাদিকদের জানায়, প্রসব ব্যথা উঠলে গত মঙ্গলবার দুপুরে প্রসূতি হোসনে আরা বেগমকে শহরের জোড়াব্রিজ সংলগ্ন আল মদিনা নার্সিং হোমে ভর্তি করা হয়। বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে সেখানে প্রসূতির অপারেশন (সিজার) করেন। পরে রোগীর অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ হলে রোগীর লোকজনকে না জানিয়েই ৭ টায় ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ প্রসূতিকে দিনাজপুর এম. আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করেন। সেখানে আইসিইউতে ভর্তি থাকার পর বুধবার সকাল সাড়ে ৯ টার দিকে প্রসূতি হোসনে আরা বেগম মারা যায়। তবে সিজারিয়ান শিশুটি ভালো আছে বলে জানাগেছে।

এ ব্যাপারে আল মদিনা নার্সিং হোমের প্রধান চিকিৎসক ডা. খাদিজা নাহিদ ইভাকে ক্লিনিকে পাওয়া যায়নি। 

ওই ক্লিনিকের মালিক হিসেবে পরিচিত হাবিবুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, এক সময়ে আমি ওই ক্লিনিকের পার্টনার ছিলাম, এখন নাই। ওই ক্লিনিকের মালিক বর্তমানে ডা. খাদিজা নাহিদ ইভা। 

কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রেদওয়ানুর রহিম জানান, ঘটনা জানার পরপরই সেখানে পুলিশ প্রেরণ করেছিলাম, যাতে করে কোন ধরনের অপ্রীতিকর পরিস্থিতির সৃষ্টি না হয়। তবে প্রসূতি মৃত্যুর ঘটনায় এখন পর্যন্ত কেউ লিখিত অভিযোগ দায়ের করেনি। 

বিডি-প্রতিদিন/ ই-জাহান

আপনার মন্তব্য

up-arrow