Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ১৪ আগস্ট, ২০১৮ ১৮:৫৬ অনলাইন ভার্সন
১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুকে নয়, মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে হত্যা করা হয়েছিল: শেখ সেলিম
গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি

১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুকে নয়, মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে হত্যা করা হয়েছিল: শেখ সেলিম

আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য শেখ ফজুলুল করিম সেলিম এমপি বলেছেন, ৭৫-এর ১৫ আগস্ট মহান মুক্তিযুদ্ধের মহানায়ক, স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নয়, আমাদের গণতন্ত্র, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও অসাম্প্রদায়িক রাজনীতিকে হত্যা করা হয়েছিল। বাংলাদেশকে একটি দ্বিতীয় পাকিস্তান বানানোর জন্য খুনি মুশতাক ও জিয়া এমন কোন অপকর্ম নেই, যা করেনি। তারা বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করে দেশকে পেছনের দিকে ঠেলে দেয়। পরাজিত শক্তি যুদ্ধাপরাধী, বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারী, জঙ্গি, সন্ত্রাসীদের প্রতিষ্ঠিত করে দেশকে লুটপাট, হত্যা, ধর্ষণ, ক্যু, ষড়যন্ত্রের অকার্যকর রাষ্ট্রে পরিণত করে। 

মঙ্গলবার গোপালগঞ্জের শেখ ফজলুল হক মনি অডিটরিয়ামে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর আয়োজিত আরইআরএমপি-০২ প্রকল্পের গোপালগঞ্জ-২ সংসদীয় আসনের ২৮টি ইউনিয়নের ২৮০ জন নারী কর্মীদের সঞ্চয়ী অর্থের চেক ও সনদপত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। 

শেখ ফজুলুল করিম সেলিম আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্ষমতায় এসে যুদ্ধাপরাধী ও বঙ্গবন্ধুর খুনীদের বিচার করেছেন। জঙ্গী ও সন্ত্রাস নির্মূল করেছেন। বিদেশে দেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করেছেন। আল্লাহর আশীর্বাদে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনী গড়ে তুলে দেশ থেকে আমরা ক্ষুধা, দারিদ্র্য নির্মূল করে যাচ্ছি। আমরা দেশের ২ কোটি মানুষকে ঘর করে দিচ্ছি। এ কার্যক্রম গোপালগঞ্জেও শুরু হয়েছে।

তিনি বলেন, আমাদের অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক, সমাজিক ও সাংস্কৃতিক মুক্তির জন্য বঙ্গবন্ধু আজীবন লড়াই সংগ্রাম করেছেন। জীবনকে তুচ্ছ করে তিনি বাঙ্গালী জাতিকে পরাধীনতার হাত থেকে মুক্ত করেছেন। আপনারা যদি দেশকে ভালবাসেন, বঙ্গবন্ধুকে ভালবাসেন তাহলে, লোভ লালসা পরিহার করে বঙ্গবন্ধুকে অনুসরণ করুন।

স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী এ.কে ফজলুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও গোপালগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি চৌধুরী এমদাদুল হক, সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব আলী খান, যুবলীগ প্রেসিডিয়াম সদস্য ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নাঈম, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান শেখ লুৎফর রহমান বাচ্চু, পৌর মেয়র কাজী লিয়াকত আলী,গোপালগঞ্জ স্থানীয় সরকার বিভাগের ডিডি কালা চাদঁ সিংহ,এলসিএস সদস্য তসলিমা বেগম প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

পরে প্রধান অতিথি ২৮০ জন নারী কর্মীদের প্রত্যেকের হাতে সঞ্চয়ী অর্থের ৭৫ হাজার টাকার চেক ও সনদ পত্র তুলে দেন। এর আগে বেলা ১১টায় শেখ ফজলুল করিম সেলিম এমপি গোপালগঞ্জের ঘোনাপাড়ায় নির্মানাধীন সরকারী ঔষধ প্রতিষ্ঠান এসেনসিয়াল ড্রাগস কোম্পানি লিমিটেডের প্রকল্প এলাকা পরিদর্শন ও শহরের পাওয়ার হাউজ রোডে অসুস্থ বর্ষীয়ান আওয়ামী লীগ নেতা অ্যাডভোকেট আবুল হাশেম সমাদ্দারকে দেখতে তার বাস ভবনে যান এবং তার শারীরিক অবস্থার খোঁজ খবর নেন। 

বিডি-প্রতিদিন/১৪ আগস্ট, ২০১৮/মাহবুব

আপনার মন্তব্য

এই পাতার আরো খবর
up-arrow