Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ১৫ আগস্ট, ২০১৮ ১৬:৪২ অনলাইন ভার্সন
আপডেট : ১৫ আগস্ট, ২০১৮ ১৬:৪৫
শোক সভায় আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ১০
নেত্রকোনা প্রতিনিধি:
শোক সভায় আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ১০
ফাইল ছবি
bd-pratidin

নেত্রকোনার পূর্বধলায় জাতীয় শোক দিবসের সভায় আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের মাঝে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। দিবসটি উপলক্ষে আজ বুধবার দুপুরে উপজেলার পৃথক পৃথক স্থানে আলোচনা সভার আয়োজন করে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সম্পাদকের বিবাদমান দু'টি গ্রুপ। এসময় সাংবাদিক ও পুলিশসহ অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। আহতদের স্থানীয় বিভিন্ন স্বাস্থ্যকেন্দ্রে চিকিৎসা দেয়া হয়। 

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, দুপুরে পুর্বধলা বাজারে উপজেলা পার্টি অফিসে আওয়ামী লীগের সভাপতি স্থানীয় এমপি ওয়ারেসাত হোসেন বেলাল গ্রুপের আলোচনা সভা শুরু হয়। 
অন্যদিকে জামতলা বাজারে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন সমর্থক পূর্বধলা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এরশাদ হোসেন মালু গ্রুপের আলোচনা শুরু হয়। 

উভয় অনুষ্ঠান চলাচালে বেলাল গ্রুপের আলোচনা সভায় উত্তেজনাকর বক্তব্যের এক পর্যায়ে আহমেদ হোসেন সমর্থক আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এরশাদ হোসেন মালু গ্রুপের কর্মীরা এমপি ওয়ারেসাত হোসেন বেলালের সভাস্থলে হামলা চালায়। পরবর্তীতে বেলাল সমর্থকরাও আহমদ হোসেন গ্রুপের সভাস্থলে পাল্টা হামলা চালায়। 

এ সময় সংঘর্ষে এনটিভির সাংবাদিক ভজন দাস ও পূর্বধলার ভোরের কাগজের প্রতিবেদক তিলক রায় টুলু, পুলিশের এসআই শুভাশিসসহ আহত হয়েছেন অন্ততপক্ষে ১০ জন।  আহতদেরকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।  পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ কয়েক রাউন্ড টিয়ারশেল ও কাঁদানে গ্যাস ছুড়ে। এ সময় হামলায় বেশ কয়েকটি দোকানসহ আহমেদ হোসেন সমর্থকদের সভামঞ্চ ও একটি মোটরসাইকেল ভাঙচুর করা হয়। 
বর্তমানে পূর্বধলা উপজেলা সদরে থমথমে অবস্থার বিরাজ করছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়ন রয়েছে। 
আহত সাংবাদিক তিলক রায় টুলু বলেন, এ ঘটনায় কমপক্ষে ১৫ থেকে ২০ জন আহত হয়েছে। 

এ ব্যাপারে পূর্বধলা থানার ওসি বিল্লাল হোসেন আহত হওয়ার বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, দুই পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া হয়েছে। কেউ আহত হয়নি। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে।  

বিডি প্রতিদিন/মজুমদার

আপনার মন্তব্য

এই পাতার আরো খবর
up-arrow