Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ১৯ আগস্ট, ২০১৮ ২০:৪১ অনলাইন ভার্সন
'মেধাসম্পন্ন জাতি গঠনে মৎস্য খাতের অবদান গুরুত্বপূর্ণ'
নাটোর প্রতিনিধি:
'মেধাসম্পন্ন জাতি গঠনে মৎস্য খাতের অবদান গুরুত্বপূর্ণ'

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এমপি বলেছেন, চলনবিল মৎস্য ও শস্য ভান্ডার হিসেবে সমৃদ্ধ। চলনবিল সিংড়া এলাকায় প্রতি বছরে ৮ হাজার মেট্রিক টন মাছ উৎপাদন হয়। সুস্থ-সবল ও মেধাসম্পন্ন জাতি গঠনে মৎস্য খাতের অবদান অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।  আজ রবিবার দুপুরে চলনবিল অধ্যুষিত নাটোরের সিংড়া উপজেলা চত্বরে একটি পুকুরে মাছের পোনা অবমুক্তকরণ শেষে এ কথা বলেন তিনি।

তিনি আরো বলেন, জাতীয় অর্থনীতিতে এ সম্ভাবনাময় সেক্টরের ভূমিকা ক্রমাগতভাবে বেড়েই চলেছে। নদ-নদী, হাওর-বাওড় সমৃদ্ধ বাংলাদেশের আপামর জনসাধারণের পুষ্টি চাহিদা পূরণ, কর্মসংস্থান সৃষ্টি ও দারিদ্র্য বিমোচনের পাশাপাশি বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনে মৎস্য সম্পদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে। সরকারের নিরন্তর প্রচেষ্টায় বাংলাদেশ আজ মিঠাপানির মাছ উৎপাদনে বিশ্বে চতুর্থ। উন্নয়নের এ ধারা অব্যাহত রাখতে দেশীয় মাছের প্রজাতি রক্ষায় বিভিন্ন নদ-নদী ও জলাশয়গুলোতে প্রজনন মৌসুমে মৎস্য আহরণ নিষিদ্ধ করা, মাছের অভয়ারণ্য ঘোষণাসহ সরকারের নেওয়া পদক্ষেপগুলোর যথাযথ বাস্তবায়নে সকলকে সচেষ্ট থাকতে হবে।

২০১৮-১৯ আর্থিক সালের প্রাতিষ্ঠানিক ও উন্মুক্ত  জলাশয়ে রুই জাতীয় পোনা অবমুক্তকরণের সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা সিনিয়র মৎস্য অফিসার আবুবক্কর সিদ্দিক, বিভাগীয় উপ- পরিচালক রেজাউল করিম, জেলা মৎস্য কর্মকর্তা অলক কুমার সাহা, নলডাঙ্গা উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা নাজিম উদ্দিন, সহকারী মৎস্য অফিসার জহুরুল ইসলাম প্রমুখ। 
উল্লেখ্য, সিংড়া উপজেলার ৮টি প্রতিষ্ঠান ও ডাহিয়া প্লাবন ভূমিতে ৫৯২ কেজি পোনা মাছ অবমুক্ত করা হয়। 

বিডি প্রতিদিন/মজুমদার

আপনার মন্তব্য

এই পাতার আরো খবর
up-arrow