Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ১৮:৪০ অনলাইন ভার্সন
আপডেট : ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ১৯:১১
বগুড়ায় বিপদসীমার ওপরে দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে যমুনার পানি
নিজস্ব প্রতিবেদক,বগুড়া:
বগুড়ায় বিপদসীমার ওপরে দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে যমুনার পানি

বগুড়ার সারিয়াকান্দির যমুনা নদীতে প্রায় এক সপ্তাহ ধরে উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে প্রতিদিন পানি বাড়ছে। এরই মধ্যে যমুনার তীরবর্তী নিচু এলাকা ডুবে গেছে। চর এলাকা প্লাবিত হয়ে হাজার হাজার মানুষ পানিবন্দী হয়ে পরেছে।  অসময়ে বন্যা দেখা দেওয়ায় ক্ষয়ক্ষতির আশংকা দেখা দিয়েছে। সরকারিভাবে বন্যা আক্রান্ত লোকজনের মাঝে শুকনা খাবার চাল ও নগদ টাকা বিতরণ করা হয়েছে।

পানি উন্নয়ন বোর্ড সূত্রে জানা যায়, আজ মঙ্গলবার দুপুর ১২টায় সারিয়াকান্দির মথুরাপাড়া পয়েন্টে যমুনা নদীর পানি বিপদসীমার ১৬ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। আগামী দু'একদিনের মধ্যে পানি কমতে পারে বলে পাউবো বগুড়ার নির্বাহী প্রকৌশলী হাসান মাহমুদ জানিয়েছেন।  

সারিয়াকান্দি উপজেলার সার্বিক বন্যা পরিস্থিতি সম্পর্কে উপজেলা নির্বাহী অফিসার স্বাক্ষরিত প্রাত্যহিক প্রতিবেদন সূত্রে জানা গেছে, চলতি বন্যায় ৭টি ইউনিয়নের ৩৬টি গ্রাম ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এছাড়াও ৩ হাজার ৮শ ১০টি পরিবারের ২২ হাজার ৫শ' মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। আংশিক ক্ষতি হয়েছে ২শ' ৫০টি ঘড়বাড়ি, ২ হাজার ৯শ' ৬৫ জন কৃষকের ৫৭৫ হেক্টর জমির ফসল নিমজ্জিত হয়। বন্যায় ডুবে গেছে ১২টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। এসব বিদ্যালয়ে বিকল্প ভাবে পাঠদান চলছে।

চন্দনবাইশা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান শাহাদত হোসেন দুলাল জানান, তার ইউনিয়নের সবকয়টি ওয়ার্ড বন্যায় অক্রান্ত। লোকজন স্থানীয় বাধে আশ্রয় নিয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছে। 

বিডি প্রতিদিন/মজুমদার

আপনার মন্তব্য

up-arrow