Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ২০ অক্টোবর, ২০১৮ ১৯:০৫ অনলাইন ভার্সন
আপডেট : ২০ অক্টোবর, ২০১৮ ১৯:১৮
'বিগত ১০ বছরে দেশের শিক্ষাখাতে অভূতপূর্ব উন্নয়ন হয়েছে'
নিজস্ব প্রতিবেদক
'বিগত ১০ বছরে দেশের শিক্ষাখাতে অভূতপূর্ব উন্নয়ন হয়েছে'

স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বর্তমান সরকারের বিগত প্রায় ১০ বছরে বাংলাদেশের শিক্ষাখাতে  অভূতপূর্ব উন্নয়ন হয়েছে। এ খাতে উন্নয়নের ফলে দেশের সার্বিক উন্নয়ন বেগবান হয়েছে। 

শনিবার ফরিদপুরে সরকারি রাজেন্দ্র কলেজের শতবর্ষ পূর্তি অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

সরকারি রাজেন্দ্র কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মোশারফ আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর, প্রাক্তন সচিব মোঃ হেমায়েত উদ্দিন তালুকদার, সরকারী রাজেন্দ্র কলেজের প্রাক্তন অধ্যক্ষ প্রফেসর মিঞা লুৎফার রহমান, ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক বেগম উম্মে সালমা তানজিয়া ও পুলিশ সুপার মোঃ জাকির হোসেন।

স্থানীয় সরকারমন্ত্রী বলেন, রাজেন্দ্র কলেজের শতবর্ষ পূর্তি অনুষ্ঠানকে ঘিরে আজকের এ উৎসাহ-উদ্দীপনা ও প্রাণচাঞ্চল্য আমাকে আন্দোলিত করেছে। আমি এই কলেজের ছাত্র ছিলাম। আজকের দিনটিতে আমার স্মৃতিপটে এ কলেজে ছাত্র থাকাকালীন সোনালী সময় গুলো ভেসে উঠছে। এ সময় তিনি তার সময়কার বিভিন্ন ঘটনার স্মৃতিচারণ করেন।

তিনি শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, আমরা অনেক সীমবদ্ধতার মাঝে শিক্ষাজীবন পার করেছি। তোমরা এখন হাত বাড়ালেই সকল সুযোগ সুবিধা পাচ্ছ। তোমরা নিজেদেরকে একজন প্রকৃত মানুষ হিসেবে গড়ে তুলবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত ‘রূপকল্প-২০২১’ ও ‘রূপকল্প-২০৪১’ বাস্তবায়ন এবং টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে দেশের জন্য তোমরা তোমাদের মেধা, মনন ও সৃজনশীলতা নিয়োগ করবে।

মন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু যে স্বপ্নের সোনার বাংলা গঠনে নিজের সারা জীবন ত্যাগ-তিতীক্ষা ও সংগ্রাম করেছেন, নতুন প্রজন্মকে সে স্বপ্ন বাস্তবায়নের একজন যোগ্য নাগরিক হিসেবে নিজেকে গড়ে তুলতে হবে। 

তিনি বলেন, সবার সম্মিলিত প্রয়াস ২০৪১ সালের মধ্যে ক্ষুধা ও দারিদ্রমুক্ত একটি উন্নত ও সমৃদ্ধ দেশ হিসেবে বাংলাদেশকে বিশ্বের বুকে প্রতিষ্ঠিত করবে। আলোচনা অনুষ্ঠানে আগে মন্ত্রী সরকারি রাজেন্দ্র কলেজের শতবর্ষ পূর্তি অনুষ্ঠানের উদ্বোধন ঘোষণা করেন।


বিডি-প্রতিদিন/আব্দুল্লাহ সিফাত তাফসীর 

আপনার মন্তব্য

এই পাতার আরো খবর
up-arrow