Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ১৬ ডিসেম্বর, ২০১৮ ১৯:৩৩ অনলাইন ভার্সন
ভালুকায় পাঁচজনকে আসামি করে হত্যা মামলা
ভালুকা প্রতিনিধি:
ভালুকায় পাঁচজনকে আসামি করে হত্যা মামলা

ময়মনসিংহের ভালুকায় জমি সংক্রান্ত বিরোধকে কেন্দ্র করে ছেলের হাতে মা খুনের ঘটনায় জেলা জাতীয় পার্টির এক নেতা ও তার ভাইসহ পাঁচজনকে আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। ঘটনার রাতে নিহতের ছোট ছেলে বাদী হয়ে ভালুকা মডেল থানায় মামলাটি করেন। 

মামলায় আসামীরা হলেন, ঘাতক ছেলে মোস্তফা ও তার বড় স্ত্রী মোছা: মিলন অক্তার, ময়সনসিংহ জেলা জাতীয় পার্টির যুগ্ম অর্থবিষয়ক সম্পাদক একই গ্রামের মো. আবু জাফর সরকার ও তার ছোট ভাই মো. রিপন সরকার এবং একই গ্রামের মোফাজ্জল হোসেন। 

মামলা সূত্রে প্রকাশ, উপজেলার ডুবারিয়াপাড়া গ্রামের  মৃত. আব্দুল জব্বারের স্ত্রী মরিয়ম বেগম (৭০) যে ঘরটিতে থাকতেন তা ছেড়ে দেয়ার জন্য ছেলে মোস্তফা দীর্ঘদিন যাবৎ মায়ের ওপর নানা ভাবে অত্যাচার করে আসছিল। এ নিয়ে বেশ কয়েক বার সালিশও হয়েছে। নিহতের ছোট ছেলে শাহ জালাল জানান, জেলা জাতীয় পার্টির নেতা একই গ্রামের মো: আবু জাফর সরকার, তার মায়ের বাড়ির জায়গাটুকু ক্রয় করার জন্য বড় ভাই মোস্তফাকে বিভিন্ন পরামর্শ ও সহযোগীতা দিয়ে দীর্ঘদিন যাবৎ প্রভাবিত করে আসছিলেন। প্রতিবাদ করায় জাফর সরকার মিথ্যা মামলা দিয়ে তাকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে হয়রানি করেছে। সম্প্রতি বিনা কারণে ভালুকা থানার একজন দারোগা তাকে ধরতে বার বার বাড়িতে গিয়েছে। গত দুইমাস যাবৎ পুলিশের ভয়ে বাড়ি ছেড়ে তাকে বিভিন্ন স্থানে পালিয়ে থাকতে হচ্ছে। 
এলাকাবাসী জানান, ঘাতক মোস্তফার বাবা আব্দুল জব্বার বেশ কয়েক মাস আগে মারা যান। তারপর থেকে সে তার মায়ের থাকার ঘরসহ কিছু জমি বিক্রি করার জন্য তার মার উপর বিভিন্ন ভাবে নির্যাতন করে আসছিল। ঘটনার দিন ১৩ ডিসেম্বর সকালে তার মাকে বাড়ির উঠানে ঘুমন্ত অবস্থায় গলা কেটে হত্যার পর ঘাতক মোস্তুফা দৌড়ে গিয়ে পার্শ্ববর্তী জাফর সরকারের বাসায় গিয়ে আত্মরক্ষার চেষ্টা করে। কিন্তু সেখানে সুযোগ না পেয়ে বাড়ি থেকে বেড়িয়ে পালানোর সময় এলাকাবাসী তাকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেন। 

খবর পেয়ে জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আলী হায়দার চৌধুরীসহ পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাগন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। এ সময় এলাকার শত শত লোক খুনের সাথে জড়িতদের ফাঁসির দাবি জানিয়ে শ্লোগান দিতে থাকেন। 

জেলা জাতীয় পার্টির অর্থ বিষয়ক সম্পাদক মো. আবু জাফর সরকার জানান, আমি এ বিষয়ে কিছুই জানিনা। স্থানীয় খাদেমুল হাজি ও আবুল কাশেমের ষড়যন্ত্র করে আমাকে মামলার আসামি করেছে। 

ভালুকা মডেল থানার ওসি ফিরোজ তালুকদার জানান, নিহতের ছোট ছেলে শাহ জালাল বাদী হয়ে ৫ জনকে আসামি করে ভালুকা মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা দয়ের করেছেন। মাকে খুন করার ঘটনায় প্রধান আসামি ঘাতক ছেলেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অন্যান্যদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। 

বিডি প্রতিদিন/এ মজুমদার

আপনার মন্তব্য

up-arrow